পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (কায়স্থ কাণ্ড, ষষ্ঠাংশ, দক্ষিণরাঢ়ীয় কায়স্থ কাণ্ড, প্রথম খণ্ড).djvu/৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন কুলস্থান ] দক্ষিণরাজীক্স কাজস্থকাগু gNరి এ দিকে সেনকুলপ্রদীপ রাজা বিজয়সেনও রাঢ়ের সীমান্তে বিক্রমপুরে অধিষ্ঠিত হইয়াছিলেন। এখানে সৰ্ব্বপ্রধান কুলস্থান বিক্রমপুর সম্বন্ধে কিছু আলোচনা প্রয়োজন মনে করিতেছি । বিক্রমপুর। গৌড়বঙ্গের সামাজিক ইতিহাসে বিক্রমপুরের নাম অতি প্রসিদ্ধ। কি ব্রাহ্মণ, কি কায়স্থ, কি বৈদ্য বিক্রমপুরের নামে অতীত গৌরবের স্মৃতিতে উল্লসিত হইয়া থাকেন । কিন্তু সেই অতীতের গৌরবম্পন্ধী বিক্রমপুর রাজধানী ঠিক কোথায় ছিল তাহ লইয়া যথেষ্ট মতভেদ BBB S BBBBBB BBBBSBBBBB BB BB BBBB BBBB BBBBBSBBBBB BBS করিলে তাহীদের তাম্রশাসন বর্ণিত বিক্রমপুর রাজধানী যে পূৰ্ব্ববঙ্গে বিদ্যমান ছিল, তাহাতে কোন সন্দেহ থাকে না। কিন্তু রাজা বিজয়সেনের বারাকপুর তালুশাসন, রাজ বল্লালসেনের সীতাহাটী তাম্রশাসন, এবং রাজা লক্ষ্মণসেনের জয়নগর-মজিলপুর, তাহার তপনদীঘির ও ও গোবিন্দপুর প্রভৃতি স্থানের তামশাসন পাঠ করিলে উক্ত সেনরাজগণের বর্ণিত বিক্রমপুর পূর্ববঙ্গে না হইয়া পশ্চিমবঙ্গের কোন স্থানে ছিল বলিয়া মনে হইবে । রাজা বিজয়সেন কখনও পূর্ববঙ্গে গিয়াছিলেন কি না তাহার কোন প্রমাণ নাই। বরং বিজয়সেনের দেওপাড়া লিপি, তৎপুত্র রাজ বল্লালসেনের দানসাগর গ্রন্থ, সন্ধ্যাকর নন্দীর রামচরিত কাব্য এবং বল্লালসেনের তাম্রশাসন হইতে মনে হয় বরেন্দ্রেই রাজা বিজয়সেনের অভু্যদয়,-রাঢ়দেশই তাহার ও তাহার পূর্বপুরুষগণের পূৰ্ব্বলীলাস্থান । বারাকপুর-তাম্রশাসন হইতে জানা যায় রাজা বিজয়সেনের পট্টমহিষী শূররাজকন্ত বিলাসদেবী বিক্রমপুরোপকারিক মধ্যে যে তুলাপুরুষ দান করিয়াছিলেন, সেই মহাদানে হেমকৰ্ম্মের দক্ষিণস্বরূপ মহারাজ বিজয়সেন বিক্রমপুর-সমাবাসিত জয়স্কন্ধাবার হইতে উদয়কর শৰ্ম্মাকে পাড়ি বিষয়ে ঘাসসম্ভোগ ভট্টকর গ্রামে পাটক চতুষ্টয় ভূমিদান করিয়াছিলেন। সন্ধ্যাকর ননীর রামচরিতে নিদ্রাবলীয় বিজয়রাজ ও দেবগ্রাম-প্রতিবদ্ধ বালবলভীপতি বিক্রমরাজ এই দুইজন রাজার উল্লেখ আছে। উক্ত নিদ্রাবলি বীরেন্দ্র ব্রাহ্মণদিগের কুলগ্রন্থে ‘নিদ্রালি’ নামে পরিচিত। বর্তমান রাজসাহী জেলায় গোদাগাড়ী থান হইতে ৮ মাইল পূৰ্ব্বদক্ষিণে এবং বোয়ালিয়া হইতে ৯ মাইল পশ্চিমে বিজয়নগর নামে একটা প্রাচীন গ্রাম আছে । উক্ত গ্রামের নিকটেই নিদ্রাবলি বা নিদ্রালি গ্রাম ছিল। উক্ত বিজয়নগরের কিছুদূরে দেওপাড়া গ্রামে বিজয়সেনের শিলালিপি আবিষ্কৃত হইয়াছে। সেই শিলালিপি অমুসারে মঙ্গরাজ বিজয়সেন প্রহ্লামেশ্বরলিজের জন্ত এক বৃহৎ মন্দির প্রতিষ্ঠা করেন, তদুপলক্ষে তাহার প্রশস্তিস্বরূপ উক্ত শিলালিপি উৎকীর্ণ হইয়াছিল ।