পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (কায়স্থ কাণ্ড, ষষ্ঠাংশ, দক্ষিণরাঢ়ীয় কায়স্থ কাণ্ড, প্রথম খণ্ড).djvu/৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


( - ) কুলীনও রাঢ় হইতে পূৰ্ব্ববঙ্গে গমন করেন। এখানে প্রথমে দনৌজামাধবের সভায়, পরে চঞ্জদ্বীপপতি দনুজমর্দনের সভায় বঙ্গাগত কুলীন সস্তানগণের সমীকরণ হইয়াছিল। বঙ্গজ কুলাচাৰ্য্য আচাৰ্য্য-চূড়ামণির কারিকায় লিখিত আছে—পূৰ্ব্বতন ঘটকের রাঢ়দেশবাসী সিংহ হইতে নন্দন পৰ্য্যন্ত্র ২৭ ঘরের কুল নির্দেশ করিয়াছেন । বল্লালসেন আট সমাজের এই ২৭ ঘরের মধ্য হইতে মুখ্যদিগকে বঙ্গে বাস করাইয়াছিলেন । তৎপরে এই সকল বংশ চন্দ্রদ্বীপে প্রতিষ্ঠিত হন। উক্ত তালপাতার পুথিতে পাই কোণগ্রাম হইতে বস্থ, বটগ্রাম হইতে ঘোষ এবং বর্ধমান হইতে মিত্র বল্লাল কর্তৃক সমানীত ও প্রতিষ্ঠিত হইয়াছিলেন। আচাৰ্য্যচুড়ামণির কারিক ও ভালপাতার পুথি আলোচনা করিলে মনে হইবে বল্লাল কর্তৃক কক্ষগ্রামে বসু, ঘোষ ও মিত্র সম্মানিত হইবার পূর্ব্বে উত্তররাঢ়ে সিংহ, দাস, ঘোষ আদি মুখ্য কুলীন বলিয়া সম্মানিত হন। এই তিন বংশের সহিত রাঢ়ে গুহবংশ সন্মানিত হইয়াছিলেন কিনা উক্ত তালপত্রের পুথি হইতে বুঝা যায় না। গুহুবংশ পরে পূর্ববঙ্গে মুখ্য মধ্যে সম্মানিত হইয়াছিলেন । উত্তররাঢ়ীয় কায়স্থসমাজে ২৭ ঘর মধ্যে আজও বাৎস্য সিংহ, সৌকালিন ঘোষ ও মৌদগল্য দাস এই তিন ঘর কুলীন, এ ছাড়া বিশ্বামিত্র মিত্র, কাশ্যপ দত্ত, মৌদ্গল্য কর, ভরদ্বাজ সিংহ, শাণ্ডিল্য ঘোষ ও কাশ্যপ দাস মৌলিক বলিয়া পরিচিত। এ ছাড়া উত্তররাঢ়ীয় বর্তমান সমাজে অপর পদবীর কায়স্থ গৃহীত হয় নাই ।” ইদিলপুরের তালপাতার পুথি হইতে বসু, ঘোষ ও মিত্র এই তিন জন মাত্র প্রথমে বল্লালী কৌলীন্ত পাইয়াছিলেন জানা যায় । এদিকে দক্ষিণরাঢ়ীয় কায়স্থ কারিকাতেও পাইতেছি -- “কৈলা মুখ্য কুলরাজ দক্ষিণ রাঢ়ের মাঝ চন্দনে তুষিল তিন জনে । সপ্তঘর মৌলিক সিদ্ধি ছিল রাজার মুৎসুদী তিনেতে চিহ্নিত কৈল দানে ॥ বপ্লালের পূজিত হয়ে ঘোষ বসু মিত্র লয়ে গৌড়দেশে ছিল সৰ্ব্বজন । রাজার হইল অপবাদ ডোমকষ্ট পরিবাদ গৌড় ছাড়ি করিল গমন ॥” (৭৭খৃঃ দ্রষ্টব্য) উক্ত তালপাতার পুথি ও দক্ষিণরাঢ়ীয় কারিক এবং ২১ পৃষ্ঠায় উদ্ধৃত ‘ঞ্জিঞ্জাসার’ পুথি একত্র আলোচনা করিলে মনে হুইবে অতিপূৰ্ব্বে দক্ষিণ-রাঢ়বাসী ১ • ঘর মাত্র রাজসন্মানিত ছিলেন ও পরস্পরে আদান প্রদান প্রচলিত ছিল। পরে গৌড়াধিপ শুরবংশের উত্তর-রাঢ়ে অধিষ্ঠানকালে ঐ দশঘরই উত্তর রাঢ়ে ছড়াইয় পড়েন। বল্লালসেনের কক্ষগ্রাম হইহে কুলবিধিকালেও তাহারা উত্তররাঢ়েই বাস করিতেন। পরে বল্লালসেন গৌড় বা উত্তর রাঢ় পরিত্যাগ করিয়া বিক্রমপুরে আসিয়া অধিষ্ঠিত হইবার পরে বসু, ঘোষ ও মিত্র এই তিন জনের ছয়ট পুত্র দক্ষিণরাঢ়ে ছয় সমাজে এবং বঙ্গে সাতজন বল্লাল কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত হইয়াছিলেন।' - ہے مہمہس* (৫) এই গ্রন্থের ৮২ পৃষ্ঠা দ্রষ্টব্য। । (৬) বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস, উত্তররাঢ়ীয় কায়স্থ বিবরণ, ১ম খণ্ড দ্রষ্টব্য । (৭) এই গ্রন্থের ৭৭ পৃষ্ঠা এবং রাজন্তকাগু, ৩৩৩গৃষ্ঠা দ্রষ্টব্য।