পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/১৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>sや বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস [ বৈশু-কাণ্ড । নৈতিক নিয়মাবলী এবং তাহার আত্মজীবন সম্বন্ধে অনেক তথ্যই পাওয়া গিয়াছে। বাকী গুলি কাহারও নামে উৎসগ করা হইয়াছে অথবা কোন ব্যক্তি বা কোন ঘটনার স্মরণ-চিহ্ন স্বরূপ ব্যবহার করা হইয়াছে । এই সকল শিলালিপিতে তৎকালপ্রচলিত স্থানীয় প্রাকৃত ভাষাই ব্যবহার করা হইয়াছে। অনেকগুলিই লোকশিক্ষার উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠিত। ইহা হইতে smask, বুঝা যায় যে, সাধারণ্যে তখন লিখিত ভাষার বিশেষ প্রচশ্রেণীবিভাগ লন ছিল। বড় বড় রাস্তার ধারে এবং যে সকল তীর্থে বহু লোকের সমাগম হয়, সেই সকল স্থানে এই সকল স্তস্তাদি স্থাপন করা হইয়াছিল । ভারতের পশ্চিম সীমান্ত দেশের শিলাগাত্রে যে চতুর্দশসংখ্যক লিপি আবিষ্কৃত হইয়াছে, তাহা স্থানীয় খরোষ্ঠীভাষার অক্ষরে লিখিত। বাকী লিপিগুলি ব্রাহ্মী বর্ণমালা হইতে উদ্ভুত উত্তর ও পশ্চিম-ভারতে প্রচলিত ভাষাসমূহের বর্ণমালায় খোদিত । উক্ত লিপিগুলি আটশ্রেণীতে বিভক্ত হইতে পারে ;– ' ১। শিলালিপি—অশোকের অভিষেকের ত্রয়োদশ কি চতুর্দশ বৎসর পরে অর্থাৎ ৩.৭ কি ৩০৬ খৃঃপূর্বাদে খোদিত। ২। কলিঙ্গ—অমুশাসন (ছুইখানা ) সম্ভবতঃ ৩০৫ খৃঃ কি ৩-৪ পূর্বাদে প্রচারিত । ইহাতে সুধু নবজিত প্রদেশের কথাই দেখিতে পাওয়া যায়। ৩। গয়ার নিকটবর্তী বরাবরের গুহালিপি ( তিনখানা ) ৩০৩ কি ৩০২ খৃঃ পূর্বাদের মধ্যে খোদিত। ৪ । তরাইয়ের স্তস্তলিপি ( দুইখানা ) প্রায় খৃঃ পূঃ ৩০০ অব্দে খোদিত । ৫। শাসন-স্তম্ভ-লিপি—২৯৬ কি ২৯৪ খৃঃ পূর্ববাদে প্রতিষ্ঠিত। ৬। অতিরিক্ত শাসন-স্তস্তলিপি—২৯৪ খৃঃ পূর্বাদে কি তাহারও পরে প্রচারিত । ৭ । অপ্রধান শিলালিপি—সম্ভবতঃ ২৮৮ কি ২৮৭ খৃঃ পূর্ববাদে বুদ্ধের নির্ববাণের ২৫৬ বৎসর পরে খোদিত । ৮ । ভাত্রা অমুশাসন—অপ্রধান শিলালিপির কালে প্রচারিত। ১, চতুর্দশ শিলালিপিতে অশোকের রাজ্যশাসনপ্রণালী ও নৈতিক নিয়মগুলি । বিশদরূপে বিবৃত হইয়াছে। প্রত্যেক শিলালিপিতে স্বতন্ত্র স্বতন্ত্র বিষয় আলোচিত হইয়াছে। এইগুলি কেবল দূরবর্তী সীমান্ত প্রদেশের জন্যই প্রচার করা হইয়াছিল ।