পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/১৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


? : R - বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস [?નજી રાહ , মাত্রেই স্বীকার করিবেন। চন্দ্রগুপ্ত হইতে বৃহদ্ৰথ পৰ্য্যন্ত এই কয়জন মৌর্য্য নৃপতি পুরাণানুসারে ১৩৭ বঙ্গবন্ধ পর্বগুঞ্জ করিয়াছিলেন। BB BBD DDBB BB BBBYtEBBB BllOB BB BBB B BBS kBB BBDD DDDDBBBS BBB BBB DDD DD BiD BB BB B BBB , ( হইতে ব্ৰাহ্মণৰ প্রাপ্ত হুইয়াছিলেন । পূৰ্ব্বোক্ত চিতোরগড়ের শিলালিপিতে ধে শ্লোক আছে, তাহা হইতেও এইরূপ অর্থই হৃদয়नम इब्र । cश्नांकछि ७श्- - জীয়াৰানন্দপুৰ্ব্বং তদহি পুরমিলাথওসৌন্দৰ্য্যশোভিক্ষেণীেপৃষ্ঠস্বমেব ত্ৰিদশপুরমধঃ কুৰ্ব্বদুচ্চৈঃ সমৃদ্ধ । ধৰ্ম্মাদাগত্য বি প্রশচতুরুদধিমহী (। ) বেদিনিক্ষিপ্তযুপে বপ্লখে বীতরাগশ্চরণযুগমুপাসীত (সিষ্ট) হারৗতরাশেঃ ” * যে আনন্দপুর ইলাখণ্ডেয় ( পৃথিবীর একাংশের ) সৌন্দর্য্যে শোভিত হইয়া, ক্ষেীণী পৃষ্ঠস্থ হইলেও আপন সমৃদ্ধি দ্বারা ত্ৰিদশপুরকে অধঃপতিত করিয়াছে এবং যে আনন্দপুর হইতে বীতরাগ, উদধিমহীবেদনিক্ষিপ্ত ধপ (যিনি বেদীর অর্থাৎ চতুঃসমুদ্রপারবেষ্টিত মহীর উপরে যজ্ঞস্তস্ত স্থাপন করিয়াছেন, এমন ) বল্প আসিয়া হারাত-রাশির চরণপদ্ম বন্দনা করিয়াছেন,—সেই আনন্দপুর বিজয়ী হউকু — এখানে বল্পকে পরিষ্কারভাবে বিপ্র বা ব্রাহ্মণ বলা হইয়াছে এবং যে স্থান হইতে তিনি আসিয়াছিলেন, তাহার নাম আনন্দপুর বলিয়া উল্লেখ করা হইয়াছে। বৰ্ত্তমান বড়নগরই প্রাচীন আনন্দপুর, কুমারপালের রাজত্ব কালে উৎকীর্ণ বড়নগরে যে প্রশস্তি আছে, তাহাতে এই নগরের নাম আনন্দপুর, এবং এখানে সেই সময়ে নগর’ নামে বহু ব্ৰাহ্মণের এক পল্লী ছিল । নগর ব্রাহ্মণদিগের মধ্যেও এই মৰ্ম্মের একটি প্রবাদ প্রচলিত আছে । ৬৪৯ এবং ৬৫১ খৃষ্টাব্দে উৎকীর্ণ আলীনার দুই খানি তাম্রশাসন একই ব্যক্তিকে প্রদান করা হইয়াছিল। প্রথম শাসনে তাহাকে আনৰ্বপুরবাসী এবং দ্বিতীয়শাসনে তাহাকে আনন্দপুরবাসী বলা হইয়াছে। ইহা হইতে বুঝা যায় যে আনৰ্বপুর আনন্দপুরের একটী নাম। এদিকে লোকের মুখে মুখে শুনিতে পাওয়া যায় যে, ত্রেতাযুগে বড়নগরকে আনৰ্বপুর বলা হইত। এই দুই কারণে বড়নগরই যে আনন্দপুর এবং গুছিলোৎবংশের প্রতিষ্ঠাতা বঙ্গ যে বড়নগরের নাগরব্রাহ্মণবংশোদ্ভূত, এইরূপ বিশ্বাস স্বাভাবিক বলিয়াই মনে হয়। এ বিষয়ে যদি কাহারও সন্দেহ থাকে, তবে রাণী কুম্ভের সময়ে যে একলিঙ্গমাহাত্ম্য রচিত হইয়াছিল, তাহাদ্বারাও সেই সন্দেহের সম্পূর্ণ রূপেই নিরাকরণ হইবে। একলিঙ্গমাহাত্মা হইতে কয়েকটি শ্লোক উদ্ধৃত করা যাইতেছে— “জয়তি জগতি বিখ্যাতং সকলমহীলোকপাবনং মুমহৎ । ঐএকলিঙ্গদৈবতং গোত্ৰং বৈজবাপাহবম্ ॥৯