পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/১৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১ম অংশ । ] বৈশু-সাম্রাজ্য 》8월 উক্ত শিলালিপি হইতে কেবল যে তাহার রাজ্যবিস্তারের প্রায় সম্পূর্ণ ইতিহাস সংগৃহীত হইতে পারে তাহা নহে, ইহাতে র্তাহার শাসনকালের অনেক প্রধান প্রধান ঘটনারও উল্লেখ আছে । এই ইতিহাস বিশুদ্ধ সংস্কৃত ভাষায় পদ্যে ও গড়ে লিখি । কিন্তু ইহার তাষা ও রচনা-প্রণালী দেখিয়া ইহা ৩৬০ খৃঃ অব্দে কি তাহার দুই এক বৎসর আগে বা পরে রচিত হইয়াছিল বলিয়া একপ্রকার সিদ্ধান্ত করা যাইতে পারে । কবি সমুদ্র গুপ্তের দিগ্বিজয়যাত্রা চারিভাগে বিভক্ত হইয়াছে—১ম দক্ষিশত্যের রাজাদিগের বিরুদ্ধে—২য় আর্যাপর্বের নৃপঠিবগের প্রতিকূলে, এখানে নয় জন রাজার নাম পাওয়া গিয়াছে, আরও কয়েকজন অনুল্লিখিতনামা রাজার কথাও আছে । —৩য় অসভ্য পৰ্য্যসৰ্দ্দারদিগের বিরুদ্ধে এবং—৪র্থ সীমান্তবর্তী রাজা ও রাজতন্ত্রের প্রতিকুলে । বহুদূরবর্তী কতিপয় রাজার সঙ্গেও যে র্তাহার আলাপ ব্যবহার ছিল, এই কাব্য ইতিহাসে তাহারও পরিচয় পাওয়া যায় । স্থানগুলির অবস্থা স্তর ও নামান্তর হওয়াতে সমুদ্রগুপ্ত যে কোথায় কোথায় যুদ্ধ করিয়াছিলেন এখন তাহ ঠিক করা সুবিধাজনক নহে। কিন্তু তাহীর রাজ্যের সীমা যে বহুদূর পর্যান্ত বিস্তৃত হইয়াছিল, বহুদূরপালী রাজস্যবর্গের সঙ্গে ও যে তাহার রাজনৈতিক সম্বন্ধ স্থাপিত হইয়tছিল, উক্ত শিলালিপি হইতে ভtহার বেশ একটা সুস্পট তা ভাষ পাওয়া যায়। কলি ঐতিহাসিক ও স্তাবক কবিত্বের দিকে লক্ষ্য রাখিয়াই ইতিহাস রচনা করিয়াছিলেন, তাই ইহা হইতে অভিযান ও দিগ্নিজয়ের পৌদবীপৌর্য্য নির্ণয় করা স্ত্ৰ কঠিন । সুবিপুল বাহিনী সঙ্গে লইয়া সমুদ্রগুপ্ত বৰ্ত্তমান ছোটনাগপুরপ্রদেশের মধ্যদিয়া একেবারে দক্ষিণাভিমুখে অগ্রসর হইয়। দক্ষিণে কৌশলরাজ্যের সম্মুখে গিয়৷ উপস্থিত হইলেন । ইহাই ভঁ{হার প্রথম অভিযান বলিয়া উল্লিখিত হইয়াছে । এই কোশল দেশ মহানদীর তীরে অবস্থিত ছিল। নৃপতি মহেন্দ্র” শত্রুর সঙ্গে যথাসাধ্য শক্তি পরীক্ষা করিয়াছিলেন, কিন্তু ভাগ্যলক্ষী ভঁtহার উপর প্রসন্ন হইলেন না । এইরূপে দক্ষিণ কোশল জয় করিয়া সমুদ্রগুপ্ত আরও দক্ষিণ দিকে অগ্রসর হইলেন এবং উড়িষ্যা ও বর্ধমান মধ্য প্রদেশের মস স্ত্য জাতি গুলিকে ও পরাজি গু করেন । এই প্রসঙ্গে কৰি বলিয়াছেন যে, “মহাকান্তর’ বা সেই সকল বন্য প্রদেশের যিনি সর্বপ্রধান রাজা ছিলেন প্তাহার নাম ছিল ব্যাঘ্ররাজ । ইহার পরে আরও দক্ষিণাভিমুখে অগ্রসর হই । তিনি {{ক্ষিণাত্য-বিজয়