পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/১৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*● २ বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস [ বৈগু-কাণ্ড । مساہیے۔---س۔ মামিয়া আসিবেন, তখন কোথা হইতে তীক্ষ ছোর হাতে করিয়া একটা লোক উপাত্তের মত আসিয়া তাহাকে আক্রমণ করিল। কিন্তু রাজদেহ স্পর্শ করিবার পূৰ্ব্বেই তাহাকে ধরিয়া ফেলা হইল। হৰ্ষবৰ্দ্ধন নিজে আক্রমণকারীকে তাহার এই কাৰ্য্য সম্বন্ধে প্রশ্ন করিতে লাগিলেন এবং শেষে জানিতে পারিলেন যে অনেক গুলি গোড়া ব্রাহ্মণ তাছাকে এই কাৰ্য্যে উৎসাহিত কৰিছে। তৎক্ষণাং ৫০ শত বিখ্যাত ব্রাহ্মণকে ধরিয়া আনা হইল। তাহাদিগকেও এই কথা এবং মঠে অগ্নি প্রয়োগের কথা স্বীকার করিতে হইল। তখন রাজার আদেশে ষড়যন্ত্রের প্রধান পাগুদিগকে নিহত এবং পাঁচশত ব্রাহ্মণকে নিৰ্ব্বাসিত করা হইল । ইহা ছাড়া হৰ্ষবৰ্দ্ধন যে আর কখনও ধৰ্ম্মমতের জন্ত কাহাকেও উৎপীড়ন করিয়াছেন, তাহার প্রমাণ পাওয়া যায় না। তবে বৈদেশিক ধৰ্ম্মের প্রতি কঠোরতা প্রদর্শন সম্বন্ধে বৌদ্ধ ঐতিহাসিক তিব্বতের তারনাথ একটি জনশ্রুতির উল্লেখ করিয়াছেন। শুনিতে পাওয়া যায় যে, হর্ষবৰ্দ্ধনের সময়ে কতকগুলি পারসিক ও শক ভারতবর্ষে আপনাদিগের ধৰ্ম্ম সম্বন্ধে শিক্ষাদান করিতে উপস্থিত হইয়াছিলেন। মূলস্থানে ( মূলতানে ) একটি কাষ্ঠনিৰ্ম্মিত গৃহে তাহাদিগকে বহুদিন পর্য্যন্ত পরম ধয়ে আশ্রয় দান করিয়া শেষে নাকি সম্রাটের আদেশে সেই গৃহে অগ্নি প্রয়োগ করা হয়। এই জঙ্কিাণ্ডে তাহাদিগের ধৰ্ম্মগস্থাদি সহ প্রায় দ্বাদশশত পারসিক ও শক ভস্মীভূত হন। এই সকল ব্যাপারে হর্ষবৰ্দ্ধনের হাত থাকিলেও ইঙ্গ অবিসম্বদিত সত্য যে তাহার সময়ে রাজগণ অনেক পরিমাণে ধৰ্ম্মনৈতিক স্বাধীনত ভোগ করিতে পারিতেন । একমাত্র মধ্যবঙ্গাধিপ শশাঙ্কেরই ধর্মের গোড়ামির বিশেষ পরিচয় পাওয়া যায়। তিনি নিজে শৈব এবং ভয়ানক ধৌদ্ধদ্বেষী ছিলেন। যাহাতে বৌদ্ধধৰ্ম্মের বিলোপ সাধন করিতে পারেন, সেই উদ্দেশ্যে তিনি প্রাণপণে চেষ্টা করিয়াছিলেন। বোধগয়ার পবিত্র বোধিবৃক্ষটিকে সমুলে উৎপাটিত করিয়া তিনি ভস্মীভূত করেন ; পাটলিপুত্রে বুদ্ধের পদচিহ্নসম্বলিত যে একখানা প্রস্তরখণ্ড ছিল, তাহ। চুৰ্ণবিচূর্ণ করেন এবং নেপালে পাৰ্ব্বত্য প্রদেশ পর্বস্ব বৌদ্ধমঠ ভাঙ্গিতে ভাঙ্গিতে ও বৌদ্ধভিক্ষুদগকে বিতাড়িত করিতে করিতে অগ্রসর হইয়াছিলেন। স্বাস্থ হউক হর্ষের আবির্ভাবকালে সাধারণ্যে ধৰ্ম্মমতের সমন্বয় সংঘটিত হয় নাই । বৌদ্ধধৰ্ম্মে জার প্রোণিক হিন্দুধৰ্ম্মের মধ্যেই যে কেবল দ্বেষাদ্বেষী চলিয়াছিল, তাহা নহে ; বৌদ্ধধর্মের অন্তর্গত হামযান এবং মহাযান সম্প্রদায় হুইটও পরস্পরকে বিদ্বেষের চক্ষুতে দেপিত। এই জন্ত गया र বিদ্বেষের দুই একটা বিকট অভিব্যক্তি দেখিতে না পাওয়া যাইত তাহী নহে । কিন্তু সাধারণতঃ সকলেই শাস্তিতে ও স্বাধীনভাবে আপন আপন ধৰ্ম্মমত তামুবৰ্ত্তন করিতেন । DDDD DDDDBBBB BBB BB BB BBB BBBBB BB B BBB BBg gggS তীর্থে আঞ্জরস্থিত হইলেন। এই সময়ে তিনি চীনপরিব্রাজককে বলিয়াছিলেন যে, তাহার রিজের এবং ধৰ্ম্মমতনিৰ্ব্বিশেষে সকল ধাৰ্ম্মিকদিগের মধ্যে বিতরণ করেন। উপস্থিত ষষ্ঠ