পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Sb" বঙ্গের জাতীয় ईङिङ्ॉन [ বৈশু-কাও ৷ পক্ষের বিশ্বাস যে, পূর্ব-ইরাণ হইতেই আৰ্য্য-জাতির এক শাখা সেই অতি প্রাচীন কালে মিতনি বা মেসোপোটমিয়ায় গিয়া উক্ত দেবগণের পূজা প্রচার করিয়া থাকিবেন । মিতনিপক্ষীয় লিপির অংশে যে সকল লোকের নাম আছে, ঐ সকল নামের সহিত ইরাণীয় নামের সোসাদৃশ্য কল্পনা করিয়া উক্ত শিল্পলিপিবৰ্ণিত মিতনিগণের পূর্বপুরুষগণকে অনেকে পূর্ব-ইরাণবাসী মনে করিতেছেন। কিন্তু আমরা নানা কারণে তাহাদিগকে ইরাণীয় মনে করিতে পারিতেছি না। ঋকংহিতা হইতে আমরা পূর্বে যে সকল পণিপতিগণের নাম উদ্ধৃত করিয়াছি, তাছাদের অধিকাংশের নামের সহিত পরবর্তী ভারতীয় আৰ্য নামের সোসাদৃশ্য না থাকিলেও তাহাদিগকে যেমন আমরা ভারতবাসী ও আর্য্যবৈদিকভাষী বলিয়া গ্রহণ করিতে কুষ্টিত নহি, সেইরূপ কেবল নাম সোসাদৃশ্য দেখিয়া উক্ত দেবপূজকগণকে ইরাণীয় বলিতে আমরা প্রস্তুত নহি । যে সকল মিতনিপতির নাম আবিষ্কৃত হইয়াছে, তন্মধ্যে এইরূপ একটা বংশলতা পাওয়া গিয়াছে— স-উস্-সত্তর = সৌসত্র তুব রত্ত অর্ততম মুক্তিবজ স্বতর্ণ বা স্বত্ততরর এই সকল নামের সহিত বেদোক্ত পণিপতিগণের নাম পাশাপাশি রাখিয়| দিলে অনেকটা একই ছাচে ঢাল মনে হুইবে । বিশেষতঃ উক্ত দেবতাগণের মধ্যে ‘ইন্দ্র' ও 'নাসত্য’ নাম স্পষ্ট রহিয়াছে। ইরাপীয়দিগের আদিধৰ্ম্মপুস্তক অবস্তায় ‘ইন্দ্র কুদেব বা ভূতপ্রেত মধ্যে গণ্য এবং নাসত্য শব্দ ‘মাওনহৈথ্য’ রূপে কথিত হইয়াছে। এরূপ স্থলে কিরূপে বলিব যে, ঐ সকল দেবতা ইরাণীয়দিগের উপাস্ত ? এ সম্বন্ধে কোন কোন পাশ্চাত্য পণ্ডিত এমনও বলিতেছেন যে যখন বৈদিক আৰ্য্য ও আবেস্তিক আৰ্য্য মধ্যে বিরোধ বা সমাজ-পার্থক্য ঘটে নাই, সেই সময়ের আর্য্যধৰ্ম্ম মিতনিগণ গ্রহণ করিয়াছিল। কিন্তু দুঃখের বিষয় সেই স্বপ্রাচীন মিলন-অবস্থার মত ও বিশ্বাসের প্রকৃত পরিচয় এ পর্য্যন্ত কোথাও বাহির হয় নাই। বরং আমরা আবেস্তিক ধর্মের পূর্ববর্তী যে মিত্রধর্মের পরিচয়