পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/২৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


४भ अ१“ । ] বৈখ্য-সমাজের অধঃপতন ミ○○ ব্রাহ্মণক্ষত্রিয়ের জীবনই প্রকৃত মূল্যবান, কিন্তু বৈশ্ব-শূদ্রের জীবনের যে কোন মুল্য আছে, তাহা ত স্থার ধারণাই করিতেন না । ৯৭৭ খৃস্টাব্দ পর্যন্ত গান্ধীর হইতে সরস্ব উী-প্রবাহিত কুরুক্ষেত্র ভূভাগ পর্যন্ত সমস্ত পঞ্চনদ প্রদেশে কেবল ব্রাহ্মণের শাস্ত্রীয় শাসন বলিয়া নহে, ব্রাহ্মণের আধিপত্য ও প্রভুত্ব অক্ষুণ্ণ ছিল। উক্ত বর্ষে সবক্তগিন গান্ধারের রাজধানী গজনী অধিকার করেন, এবং ব্রাহ্মণ-নৃপতিকে পরাস্ত করিয়া ক্রমশ: পেশোয়ার পৰ্য্যস্ত অধিকার করিয়াছিলেন । এ সময়ে সিন্ধুপ্রদেশে সিন্ধুসেীর-ক্ষত্রিয়বংশ এবং দিল্লী, আজমীর, কালঞ্জর ও কনৌজ প্রদেশে রাহ্মণভক্ত ও ব্রাহ্মণস্থাপিত ক্ষত্রিয়বীরগণ রাজত্ব করিতেছিলেন । এই সকল বিভিন্ন রাজবংশ পরস্পর গৃহবিবাদে ও ঈৰ্ষাপশে স্ব স্ব শক্তি খর্ণব করিতেছিলেন বটে, কিন্তু সীমান্ত প্রদেশে মুসলমান তাভুদয় দেখিয় তাহার গতিরোধ করিবার জন্য সকলেই স্ব স্ব সেনাবাহিনী লইয়। একবার ব্রাহ্মণ-নরপতির পাশ্বদেশে উপস্থিত হইয়াছিলেন । এই সমবেত চেষ্টায় সবক্সগিন পেশোয়ারের সীম। পৰ্য্যস্ত তাধিকার করিলেও ভারতমধ্যে প্রবেশ করিতে সমর্থ হন নাই। ব্রাহ্মণ-ক্ষত্রিয়-সম্ভাব হেতুই সম্ভবতঃ এ সময়ে ব্রাহ্মণশাস্ত্রকারগণ ক্ষত্রিয়ের সনাতন বৈদিকাধিকার লোপ করিতে প্রস্তুত হন নাই, বরং ‘গাত্ৰং দ্বিজ ত্বঞ্চ পরম্পরার্থং” এই রূপ সহানুভূতিসূচক বাক্য অনেক ব্রাহ্মণপণ্ডিতের মুখেই শোভা পাইত। কিন্তু এরূপ সহানুভূতি বেশী দিন স্থায়ী হইয়াছিল বলিয়। মনে হয় না । পূর্বেই লিপিয়ছি, ঐ সকল ক্ষত্ৰিয়রাজগণের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র রাজ্যখণ্ড লইয়া পরস্পর প্রতিযোগিতায় দারুণ বিদ্বেষানলে হিন্দুশক্তি ক্রমশঃই ক্ষীণ হইতে ক্ষীণতর হইতেছিল । যে সময়ে গৃহদ্বারে বিদেশী মহাশত্রু কঠোর দৃষ্টিনিক্ষেপ করিতেছিলেন, তখনও তাহদের চৈতন্য হইল না। ঠিক এই সময়ে সবক্তগিনের পুত্ৰ মাহ্মদ ভারতলুণ্ঠন করিবার জন্য সদলে অগ্রসর হইলেন। তিনি ১০০১ হইতে ১০২৬ খৃস্টাব্দ মধ্যে সপ্তদশবার ভারত আক্রমণ ও লুণ্ঠন করেন । গৃহবিবাদে বিচ্ছিন্ন হিন্দুরাজশক্তি মুসলমানের গতিরোধ করিতে সমর্থ হইল না। পশ্চিম ভারতে উপযুপিরি মুসলমান আক্রমণে আর্য্যসমাজ ও হত শী হইয় পড়িতে লাগিল। আবুৱৈহান যে সময়ে তাহার ‘হিন্দুস্তান রচনা করিতেছিলেন, তৎকালে মাগদের পুনঃ পুনঃ আক্রমণে সমস্ত ভারতবাসীকে উদভ্ৰান্ত ও বিচলিত করিয়া তুলিয়াছিল এবং মুসলমানজাতির উপর হিন্দুসমালের একটা বিজাতীয় বৃণ ও মাক্রোশ উপস্থিত হইয়াছিল। এজন্য আবুৱৈহাস