পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/২৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२१७ বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস { বৈশু-কী ও তাত গামরা তালপত্রের কুলগ্রস্থ হইতেই পাইতেছি। যে সময় অচ্যুত মাইতি সমাজশাসনে ও ব্রাহ্মণনিগ্রহে পতিত হন, সে সময়ে তাহার পুরোহিত কানাই মিশ্রও পতিত হইয়াছিলেন । ইনি বংশানুক্রমে বহু অত্যাচার সহ্য করিয়াও মাই বংশের যাজ নক্রিয় পরিত্যাগ না করায় শুন্ধিসমাজে বিশেষ সম্মানিত । এখন ও শুদ্ধিসমাজে ধৰ্ম্মকৰ্ম্মে কিছু অর্থ দেওয়া হইলে উক্ত মিশ্রবংশ ৩ ভাগ এবং তাহার জামাতার বংশ ১ ভাগ মৰ্যাদা পাইয় থাকেন । আশ্চর্য্যের বিষয়, দূরবর্তী অপরাপর স্থানের শুষিগণের ন্যায় তাহদের পুরোহিতগণও পতিত বলিয়া গণ্য নহেন । কিন্তু পরবর্তী কালে শুকিসমাজ মাইতিবংশের প্রতি বরাবর সন্মান প্রদর্শন করায় সাধারণ শুন্ধি মাত্রেই ব্রাহ্মণসমাজের বিরাগভাজন হইতেছিলেন, তাহারই ফলে এই সমাজের বিরুদ্ধে নানা গ্লানি-জনক অপবাদ রটনা হইতেছিল । শুরিকগণ কেদারকুণ্ড হইতে প্রথমতঃ খান্দার, সাহাপুর, নারায়ণগড় ও খড়গপুর প্রভৃতি স্থানে ছড়াইয়া পড়েন। সেই হেতু কেদারকুণ্ড, সাহাপুর ও খান্দরে ইহারা পঠিত থাকিলেও, ইহাদের সহিত অনেক স্থলে নবশাখদিগের মেলামেশা হইয়া গিয়াছে। নিজ বীরসিংহপুর গ্রামেও কিছু দিন পূর্ব পর্য্যন্ত নবশাখদিগের সঙ্গে হুক ও পংক্তিচলন ছিল, কিন্তু কিছু দিন হইল, একবার ঐ স্থানের মাইতি লংশীয় চন্দ্রমোহন কতকগুলি গরিল প্রজাকে জলযোগের উচ্ছিন্ট পাতা উঠাইতে বলায়, তাহারা সমাজের নেতৃবর্গের সাহায্যে শুদ্ধিকগণের সহিত আহার ও হকার চলন বন্ধ করিয়া দিয়াছে । শতাধিক গ্রামে এখনও তাঙ্গদের বাটতে প্রকাশ্ব ভাবে চিরপ্রগামত উৎকলশ্রেণির ব্রাহ্মণভোজনাদি হইতেছে। শুন্ধিকগণ ইংরাজ কর্তৃপক্ষদিগকে এই কথা জানাইলে, তঁtহার কুষিজীবী শুথিকদিগকে হালিকদিগের সমশ্রেণীতে গণনা করিয়াছিলেন । মেi"ও পুর জেলার দক্ষিণ অংশে হালিক বা মাহিষ্যদিগের জল চলন আছে। ঐ অঞ্চলে হালিকদিগের সংখ্যা অনেক অধিক । তাহীদের মধ্যে দুইতিন জন রাজোপাধিবিশিষ্ট জমীদার ও বহু অর্থবান সম্পত্তিশালী পুরুষ আছেন, শুদ্ধিকগণের মধ্যে এখন সেরূপ লোক নাই, তথাপি তাহারা যে সাম্য তঃ হলিকদিগের স্যায় মর্যাদায় এবং ব্রাহ্মণভোজনাদি ব্যাপারে তাহদের অপেক্ষা ও উচ্চ সম্মানে বাস করিতেছেন, ইহাতে র্তাহীদের যে পূর্বে দ্বিজাচার ছিল, তাহ অনুমান করা যাইতে পারে। গ্রাম্য দলাদলিতে পড়িয়া বহুকাল • “দেব লয় আইলেন উৎকলব্রাহ্মণ ॥” ( কুলজী )