পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


७२ , বঙ্গের জাতীয় हैडिशंन [ ६वर्थ-कt७ ।। যথাক্রমে অর্থ করিয়াছেন—১ আচাৰ্য্য, ২ ক্ষত্রিয়, ৩ কুটুম্বিন ও ৪ প্রকৃতিকৰ্ম্মন। এখানে কুটুম্বি-শব্দ দ্বারা বৈশ্ববর্ণকেই বুঝাইতেছে। বেদে চারিবর্ণের মধ্যে “আৰ্য্যন্ত্রৈবর্ণিকঃ” অর্থাৎ ব্রাহ্মণ, ক্ষত্রিয় ও বৈশ্য এই তিন বর্ণ আৰ্য্য এবং শূদ্র অনার্ষ্য বা দস্থ্য বলিয়া নির্দিষ্ট ছিল। উক্ত চারিবর্ণের উল্লেখ থাকিলেও তদুৎপন্ন বিভিন্ন জাতির প্রসঙ্গ বেদে নাই। বরং শুক্লযজুঃংহিতার মন্ত্র মধ্যে ভক্ষ বা শিল্পী, রধকার বা সূত্ৰধার, কুলাল বা কুস্তকার, কৰ্ম্মার বা কামার ( লৌহকার ), নিষাদ বা মাংসাশী গিরিচর, পুখ্রিষ্ঠ বা পাখ মারা, শ্বস্য বা কুকুরপালক (শিকারী), মৃগয়ু বা ব্যাধ ইত্যাদি বিভিন্ন শব্দের উল্লেখ থাকিলেও ঐ গুলি কৰ্ম্মবাচী, জাতীবাচী নহে । , স্মৃতিসংহিতা-প্রচারকালে নানাজাতির উৎপত্তি হইতেছিল বটে, কিন্তু সে সময়েও আর্য্য-সমেেজ সমাজবন্ধনের কঠোরতা ছিল না, এ সময়েও একবর্ণ গুণকৰ্ম্মানুসারে বর্ণান্তর আশ্রয় করিতে পারিতেন। মনুসংহিতায় আছে— উৎকৃষ্টজাতি-ব্রাহ্মণ হইতে শূদ্রকষ্ঠাতে যে সস্তান জন্মে, সে নিকৃষ্ট হইলেও সপ্তমজন্মে উৎকৃষ্ট জাতিত্ব বা ব্রাহ্মণর প্রাপ্ত হইয় থাকে। ক্ষত্রিয় ও বৈশ্য সম্বন্ধেও এইরূপ জানিবে ।" + - যাজ্ঞবল্ক্যস্থতিতেও এইরূপ ব্যবস্থা দৃষ্ট হয়— ‘জাতির উৎকর্ষে পঞ্চম বা সপ্তম জন্মে ব্রাহ্মণ্যলাভ ; কিন্তু জীবিকার ব্যতিক্রমে পূর্ববং অধর (প্রতিলোমজ) এবং উত্তর (অমুলেমিজ) হইয় থাকে। ৮ মিতাক্ষরাকার বিজ্ঞানেশ্বর যাজ্ঞবল্ক্যসংহিতার উদেশ্ব এইরূপ বুঝাইয়া গিয়াছেন— - - ‘ব্রাহ্মণদ্বারা শূত্রাতে উৎপন্ন কণ্ঠ নিষাদী, সেই কষ্ঠ ব্রাহ্মণকর্তৃক বিবাহিতা S SSDDDBBB DDDBBBB B DD DD DDDBBD BBBBB B BBB DB DDBB BBDCTB BD DDD DD BBBD DDDDB B DDS DgDDS ( , ) “পূদ্রায়াং ব্রাহ্মণাঙ্গাত শ্রেয়স চেৎ প্রজায়তে । अप्ठंब्रांन् ८थब्रगैौ१ लांठि९ शंऋडाॉनखमांन्यूशां९ ॥ পূত্রে ব্রাহ্মণতামেতি ব্রাহ্মণশ্চেতি শূদ্রতাম। - ऋबिब्रांब्बांठरमदरू बिछांटेदछां९ ठटैषव छ ॥” ( s०७s-७e ) ( v) “জীভু্যৎকর্ষে যুগে জেয়ে পঞ্চমে সপ্তমেইপি ৰা। वालtग्न कईगां६ गांमार श्रृंबिक्रॉषरब्रांखब्रम् ॥” ( s|३४)