পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (বৈশ্য কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/৬৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


हैोन ७ जगत्र शृté उब्रडीह बनिस्भट*न छिरूकइड उपनकोब कई गर्शक क्या श्रांविझुछ इरेग्नांदइ । नड-ब ( वा 'अक्जङ्ग’) उगनिहकुलच्न बनििक्भग 8१२ इश८ड ७००९केशूर्वीएचब मश जांबांब इरशाब्रज्न यूजा वादित्र कब्रिाहिएनन। } गक्ण श्aीन भूजा इश्रउ उस्त्र भूजागाज्न आब्र७ इदेछौ नगरबत्र जैनबक्णिt"ब्र যোগদানের সন্ধান পাওয়া যায়। রণজয়ের প্রধান সহর চি-মো নগরের টীক শাল হইতে উৎকীর্ণ সেই সময়ের বহুবিধ ও বহু সখ্যক মুদ্রার পরিচয় লাকুে সাহেবের গ্রন্থে প্রকাশিত হইয়াছে ॥৯ . - * - চীন ও ভারতীয় হিন্দু লিপিযুক্ত মুদ্র হইতে সন্দেহ থাকিতেছে না, যে সেই স্বদুর অতীত কালে ভারতীয় বণিকগণ চীনদেশের অভ্যস্তরে ও বাহিরে নানা স্থানে যথেষ্ট বাণিজ্যপ্রভাব বিস্তার করিয়াছিলেন। চীন বণিকৃগণের উপর তাহাদের যথেষ্ট প্রভাব প্রসারিত হইয়াছিল, নচেৎ চীনবাসী সহজে ভারতীয় বণিকমুজার অমুকরণে কখনই অগ্রসর হইতেন না। যে চীন বহু সহস্র বর্ষ পূর্ব হইতে নানা বিষয়ের উস্তাবয়িত বলিয়া প্রাচীন সভ্যজগতে স্বপ্রসিদ্ধ, সেই জাতি যে বহু সহস্র বর্ষ পূর্ব হইতে বাণিজ্য-সম্পর্কে ভারতীয় বণিকগণের নিকট হইতে অস্তবাণিজ্য ও বহিবাণিজ্যসম্বন্ধে বহু জ্ঞান লাভ করিয়াছিলেন, ভাহাতে সন্দেহ নাই। প্রথমাধ্যায়ে আমরা দেখাইয়াছি যে,বহু সহস্র বর্ষ পূর্বে যেমন ভারতীয় পণি নামক বণিকৃজাতি হইতে মিসর, গ্রাস ও বাৰিলনে আর্য্যসভ্যতালোক প্রবেশ করিয়াছিল, সেই রূপ বহু প্রাচীন কালে ভারতীয় বণিকগণ হইতেই জাৰ্য্যসভ্যতা চীন ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জে প্রবেশলাভ করিয়াছিল, চীনদেশের মুদ্রাতত্ত্ব ও নানা চীনগ্রন্থ হইতে তাহার কথঞ্চিৎ আভাস পাওয়া যাইতেছে। খৃষ্টপূর্ব ৬ষ্ঠ শতাব্দী পর্য্যস্ত র্তাহীদের স্বাধীনতা ও প্রতিপত্তি অক্ষুণ্ণ ছিল। তৎপরে চীন জাতির অদম্য আধিপত্য বিস্তারের সঙ্গে সঙ্গে হিন্দু বণিকগণও কতকটা খর্ব হইয়া পড়েন এবং প্রায় ৫৪৭ খৃষ্ট-পূর্বাঙ্গে তাহদের নিকটবর্তী জনপদবাসী চীন • রাজের অধীনতা স্বীকার করিতে বাধ্য হইয়াছিলেন। এই সময় হইতে সেই বণিকসমাজের উপর পুনঃ পুনঃ বিপ্লবঝটিকা বহিতে আরম্ভ হইল। ৪৯৩ খৃষ্টপূর্বাৰে অপর একজন চীনপতি তাহদের উপনিবেশ আক্রমণ করিলেন। কিন্তু সেই চীনপতির অধিকার স্বপ্রতিষ্ঠিত হইতে না বইতেই ৪৭২ খৃষ্টপূর্বাৰে য়ুএছ বংশীয় • Western Origin of the Chinese Civilisation, by Prof. Terrien de Iacouperie, p. XII, XLVII, 834ff. - -