পাতা:বঙ্গের জাতীয় ইতিহাস (ব্রাহ্মণ কাণ্ড, প্রথমাংশ).djvu/৩০৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বtটীয় ব্রাহ্মণ-বিবরণ રોઝ૧ সময়ে তাঙ্গার পিতৃব্য লোকনারায়ণ নাবালক । রাজনারায়ণ নিঃসন্তান, সুতরাং লোকনারায়ণই মালিক হইলেন । এই সময়ে ১১৯৪ সালের ভীষণ দুর্ভিক্ষ જન્મ দিল । কামরূপ ও কোচবিহার হইতে বহুসংখ্যক অসভ্য কোচ ও রাজবংশ প্রাণ-রক্ষার্থ ভাওয়ালে আসিয়া উপস্থিত হইল। লোকনারায়ণ গাছার জমিদার কৃষ্ণানন্দ রায় চৌধুরী সহিত পরামর্শ, করিয়া হৰ্ভিক্ষপীড়িত অসভ্যদিগকে নিষ্কর ভূমি দিয়া তাওয়ালে স্থাপন করিলেন। তাহদের যত্নে ভাওয়ালে হিংশ্র জন্তুর উপদ্রব অনেকটা নিবারিত হয় । ১১৯৮ সনে লোকনারায়ণ শৰ্ম্ম চৌধুরী ও কৃষ্ণগুমকিশোর চৌধুরীর নামে ২• ১৬০ সিঙ্ক টাকায় ভাওয়াল সম্বন্ধে দর্শশালা বন্দোবস্ত হয় এবং তৎপরে ১২৯১ সনে M• আন ১ নং মহাল ১১৭৭৪ লিঙ্ক টাকায় লোকনারায়ণ রায়চৌধুরীর নামে পৃথক তাছতভুক্ত হয়। এই লোকনারায়ণের সময়ে ভt গুয়ালে মলঙ্গীব উৎপাত ঘটে । লোকনারায়ণের পত্নীর নাম সিদ্ধেশ্বরী। তিনি তিন মাসের শিশু লইয়। বিধবা হইলেন । এই সুযোগে দুষ্টলোকের রাজনারায়ণের বিধবা স্ত্রী তারিণীদেবীকে পোষ্যগ্রহণে মন্ত্রণ দিয়া J• আন পৃগকৃ করিয়া লইল । এ সময় কোর্ট অব ওয়ার্ডস্ হইতে নারায়ণ দাস নামে এক ব্যক্তি সরবরাহকার নিযুক্ত হন। কেহ কেহ বলেন, তিনি উৎকোচে বশীভূত হইয়। তারিণীদেবীর পক্ষ অবলম্বন করেন, তাছাতেই ১০ আনা অংশ পৃথক হইয়া যায়। শেষে সিদ্ধেশ্বরীদেবীর গ্রাসাচ্ছাদন বন্ধ হইবার উপক্রম হইল। তিনি অঙ্কি কষ্টে’ক একজন শিকদাবের সাহায্যে জীবন ধারণ করিতে লাগিলেন। এই ঘটনা হইতে ভাওয়ালে ‘নারায়ণদাসী ধূম’ কথার স্থষ্টি হইয়াছে । g যাহাহউক, বহু কষ্টের পর সিদ্ধেশ্বরী দেবীর পুত্র গোলোকনারায়ণ অধিকারী বলিয়া সাব্যস্ত হইলেন। তারিণীদেবী পোষ্য লইয়া পূৰ্বাইল গ্রামে বাস করিতেছিলেন। ক্রমে পোষ্যপুত্রের অত্যাচারে তঁহাকেই আবার সিদ্ধেশ্বরীর আশ্রয় লইতে হইল। শেষে আদালত হইতে পোষ্যপুত্র নামাঞ্জুর হইলে গোলোকনারায়ণ go আনা সম্পত্তি ফিরিয়া পাইলেন। তিনি অতি মাতৃভক্ত ছিলেন । বয়ে প্রাপ্ত হইয়াও মাতার নিকট হইতে জমিদারীর কার্য্যভার গ্রহণ করিলেন না। ভাঙ্গর প্রথম পত্নী লক্ষ্মীপ্রিয়াদেবীর গর্ভে ( ১২২৫ সনের ২৫এ শ্রাবণ) কালীনারায়ণ জন্মগ্রহণ করেন : গোলোকনারায়ণ বিষয় কৰ্ম্ম ভাল বাসিতেন না। তিনি সৰ্ব্বদাই জপ তপে কাল কাটাইতে ভাল বাসিতেন। অনেক সময় তিনি তীর্থপর্য্যটনে অতিবাহিত করিতেন। র্তাহার মাতা সিদ্ধেশ্বরী দেবীই সমস্ত বিষয়কৰ্ম্ম দেখিতেন। ক্রমে কালীনারায়ণ যৌবনসীমায় পদার্পণ করিলে তিনিও পিতামহীর সহিত জমিদারী দেখিতে থাকেন । * এই সময়ে ভাওয়ালে নীলকর ওয়াইজ সাহেবের r* ষ্টজ সাহেব 9. মানীর কোন কোন অংশ খরিদ করিয় M• অr" " (El করেন। তাহাতে ভাওয়ালের নিরীহ প্রজাপ । গ্রন্থ