পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১২৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পদাবলী—ঘনশ্যাম দাস–১৭শ শতাব্দী। ক্ষণে নিজ চরণ-কমলে অবলম্বই ক্ষণে সচকিত চাহু । ক্ষণে ক্ষণে কালুক বদন-সরোরুহ অলখিতে আওত যাহ ॥ কিয়ে রস-মাধুরী পরিখন চাতুরী কিয়ে পিবহি নাহি জানে। (১) কহ ঘনশ্যাম দাস সখী বুঝহ মনহি মনহি অনুমানে ॥ মুকুট উতারি শিখী সোঙারল বেণী-বিরচিত-কেশ ॥ চন্দন ধোই সিন্দুর ভালে রঞ্জই লোচনে অঞ্জন অঙ্ক । কুণ্ডল থোলি কর্ণফুল পহিরল তরি তন্তু কেশর পঙ্কা ॥ বেশর খচিত শতেশ্বরী পহিরল চুড়ি কনক কর কঞ্জে। চরণ-কমল-পাশে যাবক রঞ্জন তা-পর মঞ্জীর গঞ্জে ॥ কাচলী-মাঝে কদম্ব-কুমুম ভরি আরম্ভণ কুচ-আভা । অরুণাম্বর বর-শাটী পহিরল বক্র-বিলোকন-শোভা । (২) মান | তুয়া বিস্তু কান আন নাহি জানত ফুল-শরে জরজর দেহ। তুহু বিনি মনে আন নাহি জানসি অপরূপ তোহারি সেনেহ (৩) ৷ সুন্দরি দূর কর বচন বিভঙ্গ । তোহারি বিরহ যবে সে গিরিধর ধরই না পারই অঙ্গ ॥ (১) ক্ষণে ক্ষণে নিজ কমল-চরণ অবলম্বন পূৰ্ব্বক যায়, এবং ক্ষণে ক্ষণে সচকিতভাবে দৃষ্টি করে ; ক্ষণে ক্ষণে কালুর মুখপদ্ম নিবীক্ষণ করিতে আইসে এবং যায়। ইহা সেই রস-মাধুরী নিরীক্ষণ করিবার জঙ্গ কিংবা উহ! পান করিবার জন্য, তাহ বোঝা যায় না। অলখিতে = লক্ষ্য দৃষ্টি করিবার জন্ত । (২) কৃষ্ণের স্ত্রী-বেশ ধারণের কথা লিখিত হইতেছে। মুকুট খুলিয়া শিথি-পুচ্ছ সংগোপন-পূৰ্ব্বক কেশে বেণী রচনা করিলেন। চন্দন ধুইয়া কপালে সিন্দুর পরিলেন, এবং চক্ষে অঞ্জন অঙ্কিত করিলেন। কুণ্ডল খুলিয়া কর্ণে কর্ণফুল পরিলেন এবং বেশর ও শতেশ্বরী-হার পরিয়া কনক চুড়িদ্বারা কর শোভিত করিলেন। পাদপদ্মে আলতা পরিয়া তদুপরি নূপুর পরিলেন। কদম্ব-পুষ্প দ্বারা বক্ষ নিৰ্ম্মাণ করিলেন এবং রক্তবর্ণ শাড়ী পরিয়া কুটিল কটাক্ষে চাহিতে লাগিলেন। (৩) স্নেহ ।