পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পদাবলী—বিবিধ পদকর্ত—১৫-১৮শ শতাব্দী। ))'( মায়ের করুণা-ভাষ শুনিয়া ছাড়িল বাস আগে আগে চলে ব্রজরায় । কিঙ্কিণী-কাকলী-ধ্বনি অতি সুমধুর শুনি রাণী বলে সোণার বাছা যায়। ভুবন মোহিয়া উরে অঙ্গুলের নখবরে সোণায় বান্ধিয়া থোপা তায় । ধাইয়া যাইতে পিঠে অধিক আনন্দ উঠে নরসিংহ দাস গুণ গায় ॥ দ্বিজ মাধব । ইনি প্রসিদ্ধ “চণ্ডীকাব্য”-প্রণেতা। “বঙ্গভাষা ও সাহিত্যের” ৪১৭ পৃষ্ঠা দ্রষ্টব্য। বিপিনে গমন দেখি হয়্যা সকরুণ আঁখি কান্দিতে কান্দিতে নন্দরাণী । গোপালেরে কোলে লয়্যা প্রতি অঙ্গে হাত দিয়া রক্ষা-মন্ত্র পড়য়ে আপনি ॥ এ দুখানি রাঙ্গা পায় বান্ধা রাখুন তায় জানু রক্ষা করুণ দেবগণ । কটি-তট স্বৰ্য্যবর রক্ষ্য করুণ যজ্ঞেশ্বর হৃদয় রাখুন নারায়ণ ॥ ভুজযুগ নখাজুলী রাখিবেন বনমালী কণ্ঠ রাখুন দিনমণি। পৃষ্ঠদেশ হয়গ্রীব মস্তক রাখুন শিব অধঃ অঙ্গ রাখুন চক্রপাণি ॥ জল-স্থল গিরি-বনে রাখিবেন জনাৰ্দ্দনে দশদিক্‌ দশদিগপাল । যত শক্র হউক মিত্র রক্ষা করুণ সৰ্ব্বত্র নহে তুমি হইও তার কাল ॥ এই সব মন্ত্র পড়ি প্রতি অঙ্গে হাত ধরি গো-মূত্রের ফোটা ভালে দিল। এ দ্বিজ মাধৰে কয় নন্দ-বাণী প্রেমময় বলরামের হাতে সমপিল ॥