পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পদাবলী—মুসলমান বৈষ্ণব-পদকর্তাগণ—১৬-১৮শ শতাব্দী। SS86. . . সেখ ভিখনে ভণে বড় দুখ রাইয়ের মনে পাসরিলে কুঞ্জ-বন-লীলা । আমার করম-দোষে তুমি থাক অন্ত-পাশে রাধার পরাণ লৈয়ে খেলা ॥ সৈয়দ মর্ভুজ | তরু-মূলে করে কেলি ত্রিভঙ্গ হইয়া। কত কত নাগরী রহে চাদ-মুখ চাহিয়া ॥ জিনি শশী দিবাকর বদন উজল। মোহিত হইল যত ব্ৰজ-রমণী সকল ॥ কপালে তিলক চাদ জিনি তারাগণে l চিকুর জিনিয়া ছটা সুপীত-বসনে ৷ সৈয়দ মর্ভূজা কহে নাগর রসিয়া। ভুলায়ল গোপ-নারী মুরলী শুনায়া ॥ একে তোমার গোরা গা ন সহে ফুলের ঘা বায় হেলিছে সব অঙ্গ। দেখিয়া তোমার মুখ অন্তরে বিদরে বুক কাম-সাগরে উঠে রঙ্গ ॥ তোমারে কাণ্ডারী করি জলেতে ভাসাব তরী যদি কৃপা করহ আমারে । বুঝির অাপন কাষ পার কর শু্যামরাজ চড়াইয়া নৌকার উপরে ॥ সৈয়দ মর্ভূজা-বাণী শুন রাধা-ঠাকুরাণী ধনি ধনি তোমার জীবন। ব্ৰহ্মা বিষ্ণু মহেশ্বর যারে ভাবে নিরস্তর সে তোমার কেবল শরণ ॥ শুাম-বধু আমার পরাণ তুমি। 會 কোম্‌ শুভদিনে দেখা তোমা সনে পাসরিতে নারি আমি ॥ যখন দেখিয়ে ও চাদ-বদনে ধৈর্য ধরিতে নারি। Y 88