পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/১৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৈষ্ণব-চরিত্যখ্যান—গোবিন্দদাস—১৫১০-১৫১১ খৃঃ। Ꮌ Ꮌ©Ꮼ কখন হাসিছে প্রভু কখন কাদিছে। কখন বা বাহু তুলি নাচিছে গাইছে। থরথর কাপে কৰ্ভু ঘৰ্ম্ম-বারি বহে । প্রেমোচ্ছ,সি। কখন বা প্রেমাবেশে চুপ করি রছে। কখন টলিছে রোমাঞ্চিত কলেবরে । প্রাণ-কৃষ্ণ বলি কন্তু ডাকে উচ্চৈঃস্বরে। ঈশ্বরের প্রেমে মত্ত নবীন সন্ন্যাসী। এই কথা কাণাকণি করে ঘোগাবাসী ॥ হরি হরি বলিতে আনন্দ-ধারা বহে । পুতুলের প্রায় সবে দাণ্ডাইয়া রহে ॥ আধ-নিমীলিত চক্ষু জটা এলায়েছে। ধূলা মাটী মেথে অঙ্গ মলিন হয়েছে। কোথায় প্রাণের কৃষ্ণ এই বলি ডাকে। কখন বা হাত তুলি উৰ্দ্ধমুখে থাকে ॥ গোবিন্দ রে র্কাহা কৃষ্ণ মিলাও আনিয়া । কোথায় প্রাণের কৃষ্ণ দেহ দেখাইয়া ॥ একবার ঐ বলি ধাইয়া যাইল । বাহু পসারিয়া নিম্বে জড়াইয়া ধরিল ৷ - ঈশ্বরের প্রেমে মত্ত হইল নিমাই। এমন উন্মাদ মুঞি কভু দেখি নাই। বহু দিন সঙ্গে থাকি ফিরি নানা দেশ । দেখি নাই কোন দিন এমন আবেশ ॥ রামানন্দ গোবিন্দচরণ দুই ধারে । তালি দিয়া হরিধ্বনি করে বারে বারে ॥ প্রকাগু এক গৰ্ত্ত ছিল সড়কের ধারে । আবেশে গড়ায়ে পড়ে তাহার ভিতরে ॥ একজন দুষ্ট আসি করি হানাপান । প্রভুরে বলিলা কেন কর প্রবঞ্চন । গ্রাম্য লোকে ভুলাইয়া অর্থ লবে হরি। তাই বেড়াইছ তুমি হরিধ্বনি করি ॥ সন্ন্যাসীর পরীক্ষা লইতে আসিয়াছি। পাষণ্ডের আৰিঙৰ৷ কত শত কপট সন্ন্যাসী দেখিয়াছি ॥ > 06: