পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৩২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৈষ্ণব-চরিত্যখ্যান—প্রেমদাস–১৭১২ খ্রঃ । չՀԳձ না কহিতে প্রসাদাদি আপনে লইঞা । ভক্তগণে উপচার দিতে যায় ধাঞাঁ । রাজা কহে ভট্টাচাৰ্য্য একি আচরণ। আজি কি করিব সভে প্রসাদ ভোজন ॥ মুগুনোপবাস এই তীর্থের বিধান । তা লঙ্ঘিয়া কেমনে অন্ন জল করি পান ৷ সাৰ্ব্বভৌম বলে রাজা শাস্ত্রে এই কয়। কিন্তু সেই অন্ত পথ জানিবে নিশ্চয় ॥ এত বলি গোপীনাথ বসিঞ নির্জনে । প্রতাপরত্রের চৈতন্তআইল প্রতাপরুদ্র প্রভুর দর্শনে ॥ দর্শনে যাত্র । রাজ-পরিচ্ছদ যত বস্ত্ৰ অলঙ্কার। সল ছাড়ি একাকী করিলা আগুসার ॥ স্বল্প বস্ত্র ধুতি ফেগত পরিঞাছে মাত্র। চৈতন্ত দেখিব বলি উল্লসিত-গাত্র ॥ মনে মনে কহে কথা রাজা মতিমান। ভয়-তর্ক দুই মোর হৈল বলবান ॥ বলবতী উৎকণ্ঠ যে হুইল অন্তরে। ভয় তর্ক দুই তারে আচ্ছাদন করে। প্রভুর দর্শনোৎকণ্ঠ টানি লঞ যায়। দুই পায়ে বিকলাঙ্গক স্তম্ভ হৈল তায় ॥ নিজ-ভাগ্যবল আজি বুঝিব তোমার। পরীক্ষা করিব আমি এই সে বিচার ॥ সেই পরীক্ষাতে হব প্রাণের পরীক্ষণ । প্রাণ-প্রতি মোর নাহি আগ্রহ উপেক্ষা ॥ এমন বিচার করি রাজা মতিমান। ধীরে ধীরে চলিলেন মহাপ্রভুর স্থান ॥ ইন্দ্ৰ যেন অপরাধী হঞ কৃষ্ণ দেখি । মনঃ-কথা কহে তিহো প্রফুল্লিত আখি ॥ প্রভাব মাত্রেতে চিনি রাজা বটে এই। সুপ্ত হঞা আছে যেন বীররস যেই ॥ শঙ্কা-ভয়-তর্কানন্দ-মিশ্রিত-অন্তৰ । কষ্টে উঠাইছে পদ গমন-অম্বৰ ॥