পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৪৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


N8 o R তীর্থ-ভ্ৰমণ । বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । বাতেতে বিস্তর দিন পড়্যাছিল সেই। সভে মাত্র নৃপতির সম্ভবন (১) এই ৷ বাজারে ফিরায় ঘোড়া বেচিবার তরে। ধূলাকুট্যা কুঙর দেখিয়া গেল তারে। সারদা-চরণে গিয়া করিল প্রণতি । আশীৰ্ব্বাদ করিয়া কহেন সরস্বতী ॥ তোমার এ বৃদ্ধ ঘোড়া বেচিবে কি শুনি । উচিত করহ মূল্য কিন্ত লব আমি৷ যে আজ্ঞ বলিয়া রাজা কৈল অঙ্গীকার । আজির খরচ দেহ উচিত তোমার। মূল্য হৈল দশ আনা দিল এক টাকা । ভূপতির ভাগের নাহিক লেখা যোথা ॥ বৃদ্ধ ঘোড়া বাতের পীড়া পীঠে দিতে হাত। দেবীর কৃপায় তার না রৈল বাত ৷ ধূলাকুট্যা কুণ্ডর চড়িল তার পীঠে। পক্ষরাজ ঘোড়া যেন পবনেতে ছুটে ৷ সরস্বতী বলে শুন তুরঙ্গ-নন্দন। কুঙরে চৌরাশী তীর্থ করাহ দর্শন। জগতে তোমার নাম যেন পুরস্কার (২) । এবার জানিব গতি মহিমা তোমার। মুহূর্তেকে এখনে আসিব মোর কাছে। এত শুনি গজি (৩) অশ্ব উঠিল আকাশে। প্রথমে প্রণাম করে যমুনা-পুলিনে। বংশীবট বৃন্দাবনে ব্রজেন্দ্র-নন্দনে ॥ রাধাকুণ্ড শুমকুণ্ড শ্রীরাসমণ্ডলী। ব্ৰহ্মা শিব বাঞ্ছা করে যেই পদ-ধূলি৷ প্রদক্ষিণ প্রণাম কানাই-পদদ্বন্দ্ব। গগন-মণ্ডলে ভেটে গয়ার গোবিন্দ ॥ নীলাচলে নীলমণি নবদ্বীপে গোরা । প্রয়াগ বন্দিয়া ঘোড়া গেল হরিদ্বারা ৷ (১) সম্ভবনা=সম্পতি। যথা, বিজয় গুপ্তের পদ্মাপুরাণে শিবপ্রসঙ্গে— “সম্ভবনা কেবল বলদ ।” (২) যেন পুরস্কার =যেরূপ প্রশংসা। (৩) গাজি = গর্জন করিয়া।