পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
১০০৪
বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয়।

বোধ থাকিলে দুখ-সিন্ধু-নীরে
অবলা ভাসাতে নাই॥
পীরিতি জ্বালিয়া যদি বা যাইবা
কবে বা আসিবে নাথ।
রামীর বচন করহ পালন
দাসীরে করহ সাথ॥
তুমি দিবাভাগে লীলা-অনুরাগে
ভ্রম সদা বনে বনে।
তাহে তব মুখ না দেখিয়া দুখ
পাই বহু ক্ষণে ক্ষণে॥
ত্রুটি সম কাল মানি সুজঞ্জাল
যুগতুল্য হএ জ্ঞান।
তোমার বিরহে মন স্থির নহে
ব্যাকুলিত হয় প্রাণ॥
কুটিল কুন্তল কত সুনির্ম্মল
শ্রীমুখমণ্ডল-শোভা।
হেরি হয় মনে এ দুই নয়নে
নিমেষ দিয়েছে কেবা॥[১]
যাহে সর্ব্বক্ষণ তব দরশন
নিবারণ সেই করে।
ওহে প্রাণাধিক কি কব অধিক
দোষ দিয়ে[২] বিধাতারে॥
তুমি সে আমার আমি সে তোমার
সুহৃৎ কে আছে আর।
খেদে রামী কয় চণ্ডিদাস বিনা
জগৎ দেখি আঁধার॥[৩]

  1. নিমেষ থাকার দরুণ অনিমিষে দেখিতে পারি না।
  2. দোষ দেই।
  3. এই সমস্ত পদটির ব্যাখ্যা বঙ্গভাষা ও সাহিত্যের ২১৮ পৃষ্ঠায় দ্রষ্টব্য।