পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৫১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


〉8○○ বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । কুকথায় পঞ্চমুখ কণ্ঠ-ভরা বিষ। কেবল আমার সঙ্গে দ্বন্দ্ব অহৰ্নিশ । গঙ্গা নামে সত তার তরঙ্গ এমনি । জীবন-স্বরূপ সে স্বামীর শিরোমণি ॥ ভূত নাচাইয়া পতি ফিরে ঘরে ঘরে। না মরে পাষাণ বাপ দিল হেন বরে ৷ অভিমানে সমুদ্রেতে বাপ দিলা ভাই । যে মোরে আপন ভাবে তারি ঘরে যাই ॥ পাটুনী বলিছে আমি বুঝিনু সকল। যেখানে কুলীন জাতি সেখানে কন্দল ৷ শীঘ্ৰ আসি নায় চড় দিবা কিবা বল। দেবী কন দিব আগে পারে লয়ে চল ॥ যার নামে পার করে ভব-পারাবার। ভাল ভাগ্য পাটুনী তাহারে করে পার ॥ বসিলা নায়ের বারে নামাইয়া পদ । কিবা শোভা নদীতে ফুটিল কোকনদ ॥ পাটুনী বলিছে মাগো বৈস ভাল হয়ে। পায়ে ধরি কি জানি কুম্ভীরে যাবে লয়ে। ভবানী কহেন তোর নাএ ভরা জল । আলতা ধুইবে পদ কোথা খুব বল। পাটুনী বলিছে মাগো শুন নিবেদন । সেউতী-উপরে রাখ ও রাঙ্গা চরণ ॥ পাটুনীর বাক্যে মাতা হাসিয়া অন্তরে। রাখিল দুখানি পদ সেউতী-উপরে ॥ বিধি বিষ্ণু ইন্দ্র চন্দ্র যে পদ ধেয়ায়। হৃদে ধরি ভূতনাথ ভূতলে লুটায়। সে পদ রাখিলা দেবী সেউতী-উপরে। তার ইচ্ছা বিনা ইথে কি তপ সঞ্চরে। সেউতীতে পদ দেবী রাখিতে রাখিতে । সেউতী হইল সোণা দেখিতে দেখিতে ॥ সোণার সেউতী দেখি পাটুনীর ভয়। এত মেয়ে মেয়ে নয় দেবতা নিশ্চয় ॥