পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন সঙ্গীত—রামনিধি গুপ্ত—১৭৩৮-১৮২৫ খৃঃ । ( ৩২ ) যার মন তার কাছে লোকে বলে নিলে নিলে । দেখা হলে জিজ্ঞাসিব সে নিলে কি আমায় দিলে ॥ দৈব-যোগে একদিন হয়েছিল দরশন না হতে প্রেম-মিলন লোকে কলঙ্ক রটালে ॥ (১) ( లిరి ) তাহার কি দুঃখ সখি যে দুঃখ আমার । যখন যেখানে থাকে বোধ হয় সেই তার ॥ আমি লো তাহার তরে যেরূপ কাতর। সে যদি তেমন হতো কত স্থখ মনে কর ॥ ( ৩৪ ) তারে দেখিতে এত সাধ কেন । তিলেক না হেরি যদি সজল নয়ন ॥ আভরণ করিয়াছি লোকের গঞ্জন। তাহার কারণে মরি সে নহে আপন ॥ তাহার রীতের কথা অকথ্য কথন । তবে যে ভুলেছে মন জানিনে কি গুণ ॥ (১) যার মন . . . রটালে=আমি তার মন পাই নাই, তথাপি লোকে রটনা করিয়া দিয়াছে যে, আমি তাহার মন লইয়া গিয়াছি ( প্রকৃত পক্ষে তাহার মন তাহারই আছে,–আমি তাহা লই নাই)। তাহার সঙ্গে দেখা হইলে একবার জিজ্ঞাসা করিব, সে-ই আমার মন নিয়াছে, না আমাকে তাহার মন দিয়াছে ( অর্থাৎ, আমিই তাহাকে আমার মন দিয়াছি ;–সে দিয়াছে বলিয়া আমি জানি না ) । দৈবে একদিন দেখামাত্র হইয়াছিল,--মিলন ন হইতেই লোকে কলঙ্ক রটাইয়াছে। ›«8ግ