পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬২৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন সঙ্গীত—কৃষ্ণমোহন—২০শ শতাব্দীর পূর্বাদ্ধ। (tVన ক্ষণে ভাসে নয়ন-জলে ক্ষণে বলে শ্ৰীমতি ত আছ ভাল ॥ এ যে স্বল্প-কথা প্রাণের ব্যথা ভয়ে করি নে প্রকাশ, কি জানি কি হয় ভাগ্যে সদা ঐ মনে ত্ৰাস । বলিতে ললিতে আমার শিহরে হৃদয়, কৃষ্ণের কথা কৃষ্ণ জানেন আমার বলা নয় । আমি গো সই রাজ-নন্দিনী, কৃষ্ণপ্রেমে মজিয়ে কৃষ্ণ ভজিয়ে ছিলেম কৃষ্ণ-আদরিণী । সে সুখে বঞ্চিল বিধি কৃষ্ণ-নিধি পেয়ে পুনঃ হারাইল ॥ কৃষ্ণমোহন ভট্টাচার্য্যের গান। আজ কৃষ্ণ চল হে নিকুঞ্জ-বন, প্রাণাহুতি-যজ্ঞ করিবেন রাই লহ তারি নিমন্ত্রণ। আছেন চন্দ্রমুখী রাই চাহিয়ে ও চন্দ্র-বদন ॥ তুমি যে ছলে শুাম রায় এলে মথুরায় হয়ে এক যজ্ঞে নিমন্ত্রিত, করলে সে যজ্ঞ সমাধান হল তা জগতে বিদিত। আবার এক যজ্ঞ হবে ব্ৰজধাম, শীঘ্ৰ আসি তাও পূর্ণ কর শু্যাম। আমরা অবলা গোপবালা অনেক দুঃখে করেছি সব যজ্ঞের আয়োজন ॥ তুমি হে যজ্ঞেশ্বর দয়াময় তোমা বিনে যজ্ঞ নাহি পূর্ণ হয়। মানসে মানসে রাই করিবেন সে যজ্ঞ তোমার ঐ শ্রীচরণে সমর্পণ ॥

  • > *