পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


» «ዓ8 বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । সখি হে নারীর মুখ জানাই ঋণ নাই প্রবাস নাই দ্বিগুণ আহার ছয় গুণ শক্তি-বলে। বুদ্ধি নারীর চারি গুণ পুরুষের মুখে আগুন পড়ে শুনে শেষে নারীর বুদ্ধে চলে ॥ (১) যে পুরুষ বয়স ভেটিয়ে বুড় বয়সে করে বিয়ে সে নারীর মুখ নারি হে কহিতে। পতির ঘরে আসেন তিনি যেন পতিত-পাবনী গতি-হীনের বংশ উদ্ধারিতে ॥ গা খানি তার আদর-মাখা রোদন কিম্বা বদন বাক৷ দেখলে পতির প্রাণ শুকিয়ে যায়। মাটিতে তিনি দেন না চরণ শাশুড়ী ননদের মরণ চিরকাল মন যুগিয়ে কাল কাটায়। করেন না কোন গৃহ কায আদ ঘোমটা দিয়ে লাজ বললে রেগে হন খরতর। স্বামীকে সেজে দেন না পাণ সন্ধ্যা-কালে নিদ্রা যান ডাকিলে বলে ডেকরা কেন মর ॥ দেশের ব্যাভার দেখে কই রমণী দুঃখিনী কই আমায় নারী সাজাও ত্বরা করি । বৃন্দে বলে বেশ বেশ এস সাজাই নারী-বেশ হরি হে তোমার দুঃখ পরিহরি ॥ কৃষ্ণ-লীলার আধ্যাত্মিক তত্ত্ব। হৃদি-বৃন্দাবনে বাস যদি কর কমলাপতি। ওহে ভক্ত-প্রিয় আমার ভক্তি হবে রাধা-সতী ॥ মুক্তি-কামনা আমারি, হবে বৃন্দে গোপনারী, দেহ হবে নন্দের পুরী, স্নেহ হবে মা যশোমতী ॥ আমার ধর ধর জনাৰ্দ্দন, পাপভার-গোবৰ্দ্ধন, কামাদি ছয় কংস-চরে ধবংস কর সম্প্রতি ॥ বাজায়ে কৃপা-বাশরী, মন-ধেনুকে বশ করি, তিষ্ঠ হৃদি-গোষ্ঠে পুরাও ইষ্ট (২) এই মিনতি ॥ (১) লেখাপড়া শিথিয়াও পুরুষ স্ত্রীলোকের বুদ্ধিতে পরিচালিত হন। (২) ইষ্ট=অভীষ্ট। -