পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন সঙ্গীত–গোবিন্দ অধিকারী—জন্ম ১৭৯৭ খৃঃ । >Qb"○ ( >8 ) পিলু–পোস্তা। হরি হরি বল ওরে আমার মন । হরি বিনে কে আর আছে শমন-দমন ॥ ভাবলি না সে কাল-বরণ, কিসে হবে সে কাল-নিবারণ,— সদা যেন মত্ত বারণ, করিছ ভ্রমণ ॥ মত্ত হয়ে সম্পদে, না ভজিলি হরি-পদে, প্রতিফল তার পদে পদে, দিবে যে শমন ॥ সে পদ লক্ষ্মীর সম্পদ, ভাবলি না সে হরি-পদ, ঘটালি আপন আপদ, এ আর কেমন ॥ কারে বল আপন আপন, কর রে মন কি আলাপন, সে নহে কথন আপন, যেমন স্বপন ॥ আপন যে চিনলি না তারে, যে ভব স্তরে তারে, গোবিন্দ কয় ভাবলে তারে, পালাবে শমন ॥ ( × ) ভৈরবী—পোস্তা। তোরা যাসনে যাসনে দুতি । গেলে কথা কবে না সে–নব-ভূপতি ॥ যদি কথা না কয় তোদের সনে, ফিরে আসবি অভিমানে, আমি শুনে মর্ব প্রাণে, শু্যামের কি ক্ষতি ॥ দয়া-মায়া-হীন কৃষ্ণ, মনেতে জেনেছি স্পষ্ট, যাওয়া আসা মিছে কষ্ট, কেন পাবে সৈ– যদি যাবি মধুপুরে, আমার কথা কোসনে তারে, বৃন্দেলো তোর করে ধীরে করি মিনতি ॥ సెR