পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৬৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন সঙ্গীত—কৃষ্ণকমল গোস্বামী—জন্ম ১৮১০ খৃঃ । ᎼᏬᎼᏄ প্যারী হে’রে নিজ-করে, নথর-নিকরে, ভেবে শশী করে আবরণ করে, পুনঃ দেখি করতল, ভাবি শতদল, এ কি হ’ল বলি দূরে ক্ষেপ করে, তাতে হয় পুনঃ কঙ্কণ-ঝঙ্কার, ধনী মনে ভাবে ভ্রমর-ঝঙ্কার, অম্নি করে উহু-রব, শুনে কুহু-রব, তখন মূৰ্ছাগত হয়ে ধরায় পড়ে যায়। যে ভাবেতে রেখে এলাম রাধিকায়, এতক্ষণ বুঝি ত্যজেছে সে কায়, হায় ! বিধি নিরদয়, তোমার হৃদয়, বজ্ৰে গ'ঠেছিল বধিতে কি তায়, যার শ্বাসেতে না চলে কমলের আঁস, বল তার আর বঁাচার কি বিশ্বাস, সবে হয়েছে নিরাশ, প’ড়ে চারি পাশ, নাহি কারও চেতন-প্রকাশ ;– যদি দেখতে থাকে আশ, চল হে ত্বরায় ॥ প্রস্তাবনা ৷ চন্দ্রী-মুখে ধনী কৃষ্ণ-আগমন শুনে। আনন্দে আনন্দ-বারি বহে নয়নে ॥ মনেতে উদয় হ’ল নানা ভাবোল্লাস । অকস্মাৎ কুঞ্জ-দ্বারে দেখে পীতবাস ॥ গোস্বামি-সিদ্ধান্ত-মতে স্বয়ং ভগবান। বৃন্দাবন ত্যজি এক পদ নাহি যান ॥ তবে যে গোপিকার হয় এতই বিষাদ। তার হেতু প্রোষিত ভর্তৃকা-রসাস্বাদ ॥ ফুর্তিরূপে মূৰ্ত্তি যখন দেখেন নয়নে। তখনি ভাবেন কৃষ্ণ এলেন বৃন্দাবনে ॥ আদর্শনে ভাবে বুঝি গেছে মধুপুরী। এইরূপে কত দিন কাটেন কিশোরী ॥ দন্তবক্র বধি হরি ব্রজেতে আসিয়ে। বসন্তে করিল রাস গোপীগণ ল’য়ে ॥ ఇe')