পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৭৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন গদ্য-সাহিত্য—মৃত্যুঞ্জয়ের প্রবোধ-চন্দ্রিকা—১৮১০ খৃঃ । কহিল তোমার কি এই নাম। ইহাতে সে কহিল না ভাই আমার নাম বিশ্ববঞ্চক। দোহার নাম শব্দতঃ সমান না হউক অর্থতঃ এক বটে। অতএব আজি অবধি আমাদের বন্ধুত হইল। বিশ্বভণ্ড কহিল ভাল সমানে সমানে মিলন বিহিত বটে যদি উভয়ে সরল হয়। উভয়ে কুটিল হইলে বাহত যদ্যপি মিলন হউক তথাপি ভিতরে ফাক থাকে। যা হউক কিন্তু এক্ষণে তোমায় আমায় প্রীতি কৰ্ত্তব্য বটে। কেননা তুমি আমার গুণ জানিলা আমিও তোমার গুণ জানিলাম কেহ কাহারে কথা কোথাও কহিব না। এইরূপে দুই জনে মৈত্রী করিয়া পরামর্শ করিল এ কৰ্ম্ম ক্ষুদ্র লাভও কদাচিৎ সেও অল্প তাহাতে নিত্য-নৈমিত্তিক কৰ্ম্ম-নিৰ্ব্বাহ বিলক্ষণমতে হইতে পারে না। “চটকস্ত মাংসং ভাগশতং” এতন্ন্যায় দুর্নামের কারণ মাত্র কেবল ছ'চা মারিয়া হাত গন্ধ। অতএব চল কোন দূরদেশে গিয়া এমত জীবিকা করি যাহাতে অধিক লাভ হয়। এইরূপ পরামর্শ করিয়া উভয়ে কিছু সঙ্গে লইয়া গুজরাট দেশে গেল। তথা গিয়া বিশ্ববঞ্চক বিশ্বভওকে কহিল হি মিতা তুমি এক কৰ্ম্ম কর এই ধোয়ান পাগ মাথায় বাধিয়া এই ধোয় ধুতি ও আঙ্গরাথ পরিয়া ধোয়া কাচা চাদর গায় দিয়া এ সহরবাসী চিত্রগুপ্ত নাম মহাজনের বাট যাও। পশ্চাৎ আমিও যাইতেছি কিন্তু আমার যাওয়ার পূৰ্ব্বে তুমি আপন পরিচয় কাহাকেও কিছু দিয়া থাকিবে না আমি গিয়া দিব। কিন্তু আমি যখন তোমাকে জিজ্ঞাসিব যে আপনি হেথায় কেন। তখন তুমি কহিও যে পিতার সহিত কৰ্ম্মক্রমে বিবাদ করিয়া আসিয়াছি ইচ্ছা আছে যদি ইনি সাহায্য করেন তবে বাণিজ্য করি । অনন্তর বিশ্বভণ্ড কথিতানুরূপ সকল করিয়া তথা গেল। পশ্চাৎ বিশ্ববঞ্চক কিঞ্চিৎ পরে সেখানে গিয়া উপস্থিত হইয়া বিশ্বভণ্ডকে জিজ্ঞাসিল এ কি আশ্চৰ্য্য আপনি এ স্থানে কি নিমিত্তে। সে কহিল তাত বিমাতার বশতাপন্ন এই প্রযুক্ত র্তাহার সঙ্গে কার্যক্রমে বিবাদ হইল এই নিমিত্তে। পরে বিশ্ববঞ্চক কহিল সৰ্ব্বত্র বিখ্যাত অত্যন্ত ধনিক মহাপদ্মপতি নাম মহাজনের পুত্র ইনি। হে চিত্রগুপ্ত তোমার বড় ভাগ্য যে ইনি তোমার বাট আসেন। এ কথা শুনিয়া চিত্রগুপ্ত কহিল বটে তাহার পুত্র ইনি। আমি তাহাকে বিলক্ষণরূপে জানি। তদনন্তর বিশ্ববঞ্চক বিশ্বভণ্ডকে জিজ্ঞাসিল এক্ষণে এথায় আপনি কি করিবেন। সে কহিল ইহার নাম শুনিয়া এস্থানে আসিয়াছি ইনি যদি আমুকুল্য করেন তবে স্বজাতি-জীবিকা বাণিজ্য-কৰ্ম্ম করিব। ইহাতে চিত্রগুপ্ত কহিল তুমি যদি এই নগরে কুঠি করিয়া ব্যবসায় কর তবে আমি তোমার সহায়তা করিতে পারি। চিত্রগুপ্তের এই কথামতে &>Q ১৭১৩