পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৭৭২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ՏԳ Ֆ8 বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । উভয়ে এক দোকান করিয়া নেওয়া-দেওয়াতে চিত্রগুপ্তের বিশ্বাস জন্মাইয়া এক দিবস লক্ষ টাকা আনিল। বিশ্ববঞ্চক বিশ্বভণ্ডকে কহিল ওহে বন্ধু শুন বিদেশে দীর্ঘ কাল থাকা ভাল নয় স্ত্রীপুত্রাদি পরিবারবর্গের সংরক্ষণ পরদেশে থাকাতে হয় না। তাহাতে নানা দোষ ঘটে। আজি এক কালে অনেক টাকা পাওয়া গিয়াছে এ সকল মুদ্র কোন উপায়ে লইয়া উভয়ে স্বদেশে প্রস্থান করি। বিশ্বভণ্ড কহিল সে উপায় কি। বিশ্ববঞ্চক কহিতেছে দীর্ঘ প্রস্থে বড় কতগুলা ঘর করি দুই এক হাজার টাকার তুলা আনিয়া সেই সকল ঘরে পূরিয়া নিশীথে সেই ঘরে আগুন দিয়া পোড়াইয়া প্রাতে চিত্রগুপ্তকে গিয়া কহি। তিনি যখন কহিবেন আমার টাকার কি। তখন তুমি কহিবা তাহার ভাবনা কি আমার সঙ্গে লোক দেও আমি ঘরে গিয়া হিসাব করিয়া কড়া কড়া দাম দাম এক কালে সকল চুকাইয়া দিব। ইহাতে তিনি আপন টাকার উস্থলের জন্ত যে সকল লোক আমাদের সঙ্গে দিবেন তাহাদিগকে লইয়া যাইতে যাইতে মধ্যপথে আমি আপন বাট যাইব তদবধি তুমি পাগল হইবা মহাজনের লোকেরা যখন কিছু কহিবে তখন তুমি কেবল ভূ ভূ এই শব্দ করিবা। মহাজনের লোকের কিছু দিন এইরূপ দেখিয়া বিরক্ত হইয়া আপনারাই তোমাকে ছাড়িয়া যাইবে । ইহা শুনিয়া বিশ্বভণ্ড কহিল টাকা সামলাইয়া রাখিবর কেমন হবে। বিশ্ববঞ্চক কহিল খরচের উপযুক্ত টাকা রাখিয়া বাকী টাকা আমরা দুই জনে ভাগ করিয়া লইয়া আপন আপন রূপক সাবধান করিয়া রাখি যাহাতে কেহ জানিতে না পারে। এ কথা শুনিয়া বিশ্বভণ্ড কছিল টাকা সাবধানে রাখা কর্তব্য বটে কিন্তু এক্ষণে যে ভাগ করা সে কেবল কালনেমীর লঙ্কার বাটের মত । আকাশের পক্ষীর মাংস-পাকার্থে-বেসর বাট মুখের কৰ্ম্ম। পরের টাকা জীর্ণ করা বড় কঠিন। এ মহাজনের হাত ছাড়াইয়া নিরুদ্বেগে দেশে গিয়া এ টাকা পার করা গেল যখন এমন বুঝা যাবে তখন বাটের কথা এখন কি। কিন্তু তুমি যে পরামর্শ করিয়াছ সে উত্তম বটে। অতএব তুমি কিছু টাকা লইয়া অল্প মূল্যে অনেক হয় এতদ্রুপ তুলা প্রভৃতি সামগ্ৰী আন গিয়া। আমি বড় বড় দাড় ঘরা কতগুলা প্রস্তুত করি। এইরূপ দুই জনে নির্জনে বিচার করিয়া বিশ্ববঞ্চক তুলা কাপাসদিগর সামগ্ৰী আনিতে গেল। ইত্যবসরে বিশ্বভণ্ড দেশে লোক পঠাইয়া স্বভ্রাতাকে আনাইয়া তদ্বারা আবশ্বক ব্যয়োপযুক্ত রূপকাবশিষ্ট তঙ্ক সকল বাট পাঠাইয়া দিল। অনন্তর বিশ্ববঞ্চক সামগ্ৰী সকল আনিয়া রাত্রিযোগে সকল গৃহে অগ্নি দিয়া সকল দ্রব্য ভস্মসাৎ করিয়া পরিহিত-বস্ত্রমাত্রাবশিষ্ট উভয়ে অতি প্রত্যুষে চিত্রগুপ্তকে