পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৭৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৭১৮ বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । হবিতে উপক্ষীণ হয় অতিশয় নিরুপায় হইল কোন উপায় করা উচিত হয়। ব্রাহ্মণীর এই বাক্য শ্রবণ করিয়া ব্রাহ্মণ কহিলেন হে ব্ৰাহ্মণি ধৈর্য্য কর অধীর হইও না কাদাচিৎক সুখ-দুঃখ-মানাপমান-দ্বন্দ্বসহিষ্ণু হও । আগমাপায়ী সুখদুঃখ-প্রাপ্তিতে হর্ষবিষাদ-শূন্ত হও । সুখদুঃখাদি দ্বন্দ্ব-পদার্থেতে যে মনোনুধাবন সেই হৰ্ষবিষাদের উদ্দীপক হয়। অতএব সে সকলেতে অত্যন্ত মনোভিনিবেশ করিও না। যিনি ময়ুরদিগকে চিত্রিত হংসদিগকে ধবল শুকপক্ষাদিগকে হরিত করেন এবং তোমার বালকদিগকে নিৰ্ম্মাণ করিয়াছেন তিনি বিশ্বন্তর সকলের ভরণকর্তা ভাবনা কি। জীবদের জীবন-কাল পরমেশ্বরেচ্ছনিয়মিত তাহার অন্তথা সৰ্ব্বথা হয় না । আহারোহপি মনুষ্যাণাং জন্মনা সহ জায়তে। আয়ুৰ্ম্মৰ্ম্মাণি রক্ষতি। কা চিন্তা মরণে রণে ইত্যাদি শাস্ত্রও আছে হে প্রিয়ে এতদ্বিষয়ক কথা শ্রবণ কর। এক ভীল্ল জাতীয় পরিণত-গর্ভ স্ত্রী কাষ্ঠাহরণার্থ নিবিড় কানন-মধ্যে গিয়াছিল এক ভয়ঙ্কর বর্বর ব্যাঘ্র ঘোরতর গর্জন করিয়া অভিমুখাগত হঠাৎ দেখিতে পাইয় গুরু গৰ্ভভরেতে পলায়নাসমর্থ হইয়া ভূমিতে ঐ স্ত্রী পড়িল তাহাতে তচ্ছদর হইতে বালক ভূমিষ্ট হইল শাৰ্দ্দল সদ্যঃপ্রস্থত ঐ স্ত্রীকে আকর্ষণ করিয়া খাইয়া গেল বালক একাকী ভূতলে পড়িয়া ক্ৰন্দন করিতে লাগিল। অনন্তর পরমকারুণিক পরমেশ্বরানুকম্পাতে যে বিটপীমূলে পোত পতিত ছিল, সেই বৃক্ষের এক শাখাতে মধুমক্ষিকার আসিয়া তৎক্ষণে মধুর চাক করিল সেই মধুচক্র হইতে বালকবদনে মধু বিন্দু বিন্দু পড়িতে লাগিল এতদ্রুপে সে বালক মধুপানেতে প্রাণ ধারণ করিয়া বাচিল । আর এক কথা কহি শুন । চিরঞ্জীব নামে এক ব্যক্তি অর্ণবযানারোহণ করিয়া সমুদ্রে যাত্রা করিয়াছিল সাগরে প্রচণ্ডতর ঝঙ্কা-বায়ুতে অর্ণবপোত ভগ্ন হইয়া পয়োরাশিমধ্যে নিমগ্ন হইল। ঐ ব্যক্তি অর্ণবযানের এক ফলকাবলম্বনে ভাসিতে ভাসিতে আসিয়া পয়োনিধিমধ্যস্থিত শৈল-সন্নিধানে লাগিল ঐ পৰ্ব্বতে লম্বমান এক সৰ্প পড়িয়াছিল। চিরঞ্জাব সমুদ্র-কল্লোলে অত্যন্ত ব্যাকুল হইয়া পৰ্ব্বতোপরি জিগমিষাতে লম্বায়মান পতিত ঐ ফণীকে লতা ভ্ৰমে অবলম্বন করিয়া আলম্বীকৃত তক্তাকে ত্যাগ করিল। অনন্তর পুচ্ছপ্রদেশে স্পৃষ্টমাত্র বিষধর রোষান্বিত হইয় মুখবাদান করিয়া ঐ ব্যক্তিকে দংশন করিতে উদ্যত হবামাত্রে ঈশ্বরেচ্ছাতে তৎক্ষণে দংশজাতীয় প্রায় এক ক্ষুদ্র জন্তু তৎফণি-ফণোপারি উপবিষ্ট হওয়াতে জলেীকামুখে লবণ প্রদানমাত্রে জোক যেমন হয় তদ্বৎ সে সর্প দ্রবীভূত হইয়া অস্থিমাত্রাবশেষ থাকিল তাহাতে চিরঞ্জাব জীবন পাইল। অতএব হে ব্ৰাহ্মণি যিনি হুষ্টিকর্তা তিনিই রক্ষাকর্তা তাহার মনে