পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৮০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন গদ্য-সাহিত্য-মার্সম্যানের ভারত-ইতিহাস–১৮৩১ খৃঃ। ১৭৫১ ও ইজারদার ও চৌধুরী প্রভৃতির দিগকে এই আজ্ঞা করিলেন যে তোমার দের মধ্যে যদি কেহ ব্রিটনীয় চাকর না হয় অথবা কেহ কোন একরারের দ্বারা সুপ্রিম কোর্টের ক্ষমতা স্বীকার না করিয়া থাকে তবে ঐ কোর্টের কোন হুকুম মনিবা না। অপর র্তাহারা সে সময় সকল সেনাপতির দিগকে এই হুকুম করিলেন যে মুপ্রিম কোর্টের পরওয়ানা জারী করনার্থ কোন সিপাহির দ্বারা তোমরা সাহায্য করিব না । উক্ত ঐ সকল ব্যবহার ১৭৮০ সালের মধ্যকালে হয় ইতিমধ্যে বঙ্গদেশের প্রধান শিষ্ট বিশিষ্ট লোকের সুপ্রিম কোর্ট এবস্তপ্রকার যে অশ্রুত পরাক্রম গ্রহণ করিয়াছিলেন ইহার অন্তথা করণাভিপ্রায়ে পালিমেণ্টে এক দরখাস্ত দিলেন। অপর ঐ দরখাস্ত দিয়াছিলেন তাহার বিচারার্থ পালিমেণ্ট এক বিশেষ কমিটীর হস্তে অৰ্পণ করিলেন কিন্তু সেই কমিটীর কৃতকাৰ্য্য উল্লেখ করণের পূৰ্ব্বে হেষ্টিংস সাহেব দেশীয় আদালতের মূল ব্যবস্থার যে ব্যুৎক্রম করিলেন এবং যে আশ্চৰ্য্য উপায়ের দ্বারা তিনি সুপ্রিম কোর্টের প্রধান জজ সাহেবকে সাস্তুনা করিয়া ঐ কোর্টের শক্ৰতাচরণ নিবারণ করিলেন তাহ পাঠকবর্গকে জ্ঞাপন করা উচিত হয়। o ১৭৭৩ সালে হুকুম হইয়াছিল দেওয়ানি মোকদ্দমা সকল প্রবিন্স্যাল কৌন্সেলী সাহেবেরা দেওয়ানি আদালত স্বরূপ বৈঠক করিয়া নিৰ্ব্বাহ করিবেন। কিন্তু ১৭৮০ সালের ১১ আপ্রিল তারিখে আজ্ঞা হয় যে ঐ আদালতের কৰ্ম্ম দ্বিধা বিভক্ত করা যায় বিশেষতঃ একাংশ রাজস্ব সম্পৰ্কীয় বিষয়ক অপরাংশ ভিন্ন ভিন্ন লোকের দের বিবাদ ভঞ্জন বিষয়ক শেষোক্ত বিষয়ের বিচার করণার্থ দেওয়ানি আদালত নামে এক স্বতন্ত্র আদালত স্থাপিত হয় কিন্তু রাজকর সম্বলিত বিষয় পূৰ্ব্ববৎ প্রবিন্স্যাল কৌন্সেলী সাহেবের স্থানে অৰ্পিত থাকিল। এই নিয়ম নিৰ্দ্ধারিত হওন সময়ে সুপ্রিম কোর্ট ও গবর্ণমেণ্টেতে যে বৈরিতাচরণ ছিল তাহ নিবৃত্তিকরণাভিপ্রায়ে হেষ্টিংস সাহেব চিপজুষ্টিস সাহেবের নিমিত্ত একটা নূতন আদালত স্বষ্টি করেন এবং ঐ জষ্টিস সাহেবকে অতি ভারি বেতন ও অতি বাহুল্যরূপ পরাক্রম প্রদান করেন। পাঠকবর্গের স্মরণে থাকিবেক যে ১৭৭৩ সালে সদর দেওয়ানি আদালত নামে কলিকাতায় একটা আপিল আদালত স্থাপিত হইয়াছিল এবং ঐ আদালতে গবরনর জেনরলের ও কৌন্সেলী সাহেবের দের বৈঠক করণ পূৰ্ব্বক মোকদম নিষ্পত্তিকরণের আজ্ঞা হইল কিন্তু নিরবকাশত প্রযুক্ত সাত বৎসরের মধ্যে তাহার দের একবারও বৈঠক হয় নাই। অপর ১৭৮০ সালে সেপ্তম্বর মাসে হেষ্টিংস সাহেব কৌন্সেলে উপস্থিত হইয়া কহিলেন