পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৮১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রাচীন গদ্য-সাহিত্য—রাজ রামমোহন রায়—১৭৭৪-১৮৩৩ খৃঃ। ১৭৬১ বেদে কহেন যে মনোময়কে উপদেশ করিয়া ধ্যান করিবেক। এখানে মনোময়াদি বিশেষণের দ্বারা জীব উপাস্ত হয়েন এমত নয়। সৰ্ব্বত্র প্রসিদ্ধোপদেশাত । ১৷ সৰ্ব্বত্র বেদান্তে প্রসিদ্ধ ব্রহ্মের উপাসনার উপদেশ আছে অতএব ব্ৰহ্মই উপাস্ত হয়েন। যদি কহ মনোময়ত্ব জীব বিনা ব্রহ্মের বিশেষণ কিরূপে হইতে পারে তাহার উত্তর এই ৷ সৰ্ব্বং খন্বিদং ব্ৰহ্ম ইত্যাদি শ্রুতির দ্বারা যাবৎ বিশ্ব ব্রহ্মস্বরূপ হয়েন অতএব সমুদায় বিশেষণ ব্রহ্মের সম্ভব হয়। বিবক্ষিতগুণোপপত্তেশ্চ । ২। যে শ্রীতি মনোময় বিশেষণ কহিয়াছেন সেই শ্রুতিতে সত্যসঙ্কল্লাদি বিশেষণ দিয়াছেন এ সকল সত্যসঙ্কল্লাদি গুণ ব্ৰহ্মতেই সিদ্ধ আছে ৷ ২ ৷ অনুপপক্তেস্তু ন শারীরঃ। ৩ শারীর অর্থাৎ জীব উপাস্ত না হয়েন যেহেতু সত্যসঙ্কল্লাদি গুণ জীবেতে সিদ্ধি নাই। ৩। কৰ্ম্মকর্তৃব্যপদেশাচ্চ। ৪ বেদে কহেন মৃত্যুর পরে মনোময় আত্মাকে জীব পাইবেক এ শ্রুতিতে প্রাপ্তির কৰ্ম্ম রূপে ব্ৰহ্মকে আর প্রাপ্তির কর্তা রূপে জীবকে কথন আছে অতএব কৰ্ম্মের আর কর্তার ভেদ দ্বারা মনোময় শব্দের প্রতিপাদ্য ব্ৰহ্ম হয়েন জীব না হয়। ৪। শব্দবিশেষাৎ। ৫। বেদে হিরন্ময় পুরুষ রূপে ব্ৰহ্মকে কহিয়াছেন জীবকে কহেন নাই অতএব এই সকল শব্দ সৰ্ব্বময় ব্রহ্মের বিশেষণ হয় জীবের বিশেষণ হইতে পারে নাই। ৫ ॥ স্মৃতেশ্চ। ৬ গীতাদি স্মৃতির প্রমাণে ব্ৰহ্মই উপাস্ত হয়েন অতএব জীব উপাস্ত না হয়। ৬ । অৰ্ভকত্বাত্তদব্যপদেশাচ্চ নেতি চেন্ন নিচায্যত্বাদেবং ব্যোমবৎ । ৭ বেদে কহেন ব্রহ্ম হৃদয়ে থাকেন আর বেদে কহেন ব্ৰহ্ম ব্রীহি ও যব হইতেও ক্ষুদ্র হয়েন অতএব অল্প স্থানে যাহার বাস এবং যে এ পর্য্যন্ত ক্ষুদ্র হয় সে ঈশ্বর না হয় এমত নহে এ সকল শ্রতি দুৰ্ব্বলাধিকারী ব্যক্তির উপাসনার নিমিত্ত ব্ৰহ্মকে হৃদয় দেশে ক্ষুদ্র স্বরূপে বর্ণন করিয়াছেন যেমন কুচের ছিদ্রকে স্বত্র প্রবেশ করিবার নিমিত্ত আকাশ শব্দে লোকে কহে । ৭। সম্ভোগপ্রাপ্তিরিতি চেন্ন বৈশেষ্যাৎ । ৮ । জীবের দ্যায় ঈশ্বরের সম্ভোগের প্রাপ্তি আছে এমত নয় যেহেতু চিৎ শক্তির বিশেষণ ঈশ্বরে আছে জীবে নাই। ৮ ॥ বেদে কোন স্থানে অগ্নিকে ভোক্তারূপে বর্ণন করিয়াছেন কোন স্থানে জীবকে ভোক্ত কহিয়াছেন অতএব অগ্নি কিম্বা জীব ভোক্ত হয় ঈশ্বর জগৎভোক্তা না হয়েন এমত নয়। অত্তা চরাচর গ্ৰহণাৎ। ৯ জগতের সংহারকর্তা ঈশ্বর হয়েন যেহেতু চরাচর অর্থাৎ জগৎ ঈশ্বরের ভক্ষ্য হয় এমত বেদেতে দেখিতেছি তথাহি ব্রহ্মের স্বতস্বরূপ ভক্ষ্য সামগ্ৰী মৃত্যু হয়। ৯। প্রকরণাচ্চ। ১০। বেদে কহেন ব্রহ্মের জন্ম নাই মৃত্যু নাই ইত্যাদি প্রকরণের দ্বারা ঈশ্বর জগৎভোক্তা অর্থাৎ সংহারক হয়েন। ১০ ॥ বেদে কহেন হৃদয়াকাশে দুই বস্তু প্রবেশ করেন কিন্তু ૨૨૪