পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৮৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ᎼᏄb~8 বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । করিবে। বিশেষতঃ মায়ে খেতে বসিলে ছেলেপিলে আসিয়া ভারী গোলযোগ করিবে তাহাতে অনেক সময় নষ্ট হইবে এবং কাষের অনেক হানি হইবে। আর সে লেঠা করিয়া কায নাই এই ভাবিয়া পাক করিতে চলিলাম। তখন পাক করিয়া অনেক রাত্রি বসিয়া থাকিলাম। বাহির বাটীর কাছারী আর ভাঙ্গে না কৰ্ত্তাও বাটীর মধ্যে আইসেন না। তখন আমি অন্তান্ত সকল লোককে ভাত দিয়া এক প্রকার কায মিটইয়া কৰ্ত্তার ভাত লইয়া বসিয়া থাকিলাম। আর মনে মনে ভাবিতে লাগিলাম কর্তা এতক্ষণ পৰ্য্যন্ত আইলেন না ইহার পরে ছেলেরা জাগিয়া উঠিবে। তাহ হইলে আমার আজি আর খাওয়া হইবেক না। এই ভাবিতে ভাবিতে সেই ভাবনাটী সিদ্ধ হইল। কৰ্ত্তাও বাটীর মধ্যে আসিলেন ছেলে একটা জাগিয়া কাদিতে আরম্ভ করিল। আমি কৰ্ত্তার সম্মুখে ভাত দিয়া ঐ ছেলেটকে আনিলাম। মনে করিলাম কৰ্ত্তার খাওয়া হইতে হইতে ছেলেটার ঘুম আসিবে। না হয় কোলে লইয়াই খাওয়া যাইবেক । তাহার খাওয়া হইতে না হইতেই আর একটী ছেলে উঠিয়া কান্দিতে লাগিল। তখন মনে করিলাম এ দুজনকে লইয়াই খাওয়া যাইবে এই বলিয়া সে ছেলেটীও আনিলাম। আমি ঐ দুই ছেলে লইয়াই ভাত খাইতে বসিলাম। ইতিমধ্যে দৈবাৎ ঝড় বৃষ্টি আসিল। তখন ঐ ঘরের দীপটাও নিবিয়া গেল। তখন অন্ধকার দেখিয়া ঐ দুই ছেলে কান্দিতে লাগিল। আমার এত ক্ষুধ হইয়াছিল যে আমি যদি ঐ ঘরে এক থাকিতাম তাহা হইলে ঐ অন্ধকারেই ভাত খাইতাম । যে সকল চাকরাণী আছে তাহারা বাহিরের লোক। রাত্রিকালে ছেলে দুটিকেও কিছু অন্ধকারে বাহিরে রাখা হয় না। বিশেষ ছেলে ফুট কাদিলে কর্তাটা কঁদে কেন কাদে কেন বলিয়৷ উচ্চৈঃস্বরে সোর করিবেন। তদপেক্ষা আমার না খাওয়াই ভাল। তখন কাষে কাযেই ঐ ভাত ঐ খানেই রাখিয়া অন্ত ঘরে যাইতে হইল। পরে ঝড় বৃষ্টি কম হইলে ঐ ছেলেরা ঘুমাইয়া পড়িল। তখন অধিক রাত্রি হইয়াছে আমারও অতিশয় আলস্ত হইল সুতরাং সে দিবস আর খাওয়৷ হইল না। পর দিবস ঐ নিয়মে সকল কায তাড়াতাড়ি সারিয়া পাক করিতে চলিলাম। আমার যে কল্য খাওয়া মোটেই হয় নাই তাহা কেহ জানে না। আমি সকল লোকের খাওয়া হইয়া গেলে পর খাইব ভাবিয়াছিলাম কিন্তু কোলের ছেলেটকে একটী লোকে রাখিয়াছে। তখন তাহাকেও থাইতে দিতে হয় ছেলেটকেও দুধ খাওয়াইতে হয় সুতরাং ঐ লোকটীকে ভাত দিয়া ছেলে কোলে লইয়া আমি ভাত খাইতে বসিলাম। বসা মাত্রেই ছেলেট কোলের