পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৯০২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


్కుjs বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । s সেই সওদা শুলুক কৰ্ত্তেছে লোক আসছে জাহাজে, আপনি তার রকম চিনি সে জিনিষ যে, দি তারে বুঝে কত বিশ মূলে চীচ বিষ কি উনিশ এক নিমিষে। ( లిరి ) একদিন অগ্রদ্বীপের মহোৎসবে দেখতে গেলাম একা । আখড়াধারী যত পুরুষ নারী হয় না লেখা যোখা ৷ একবার দেখতে যেএ বারেক চেয়ে আপনাতে ভুল, বোলব কি ভুল হএ দেখি আজ বুঝি বাদল আর স্থল, জয় আদ্যোপান্ত অবিশ্রান্ত মত্ত বিচক্ষণ, অম্‌নি সে গুণের মণি আপনি কল্লেন স্মরণ, যাহা ডরিএ ছিলাম দেক্তে পেলাম দেখতে পেলাম দর্পণে। ( ७8 ) কণয কি সেই মনের মানুষ বাইরে বার করে। সদা নিত্য সুখী হএ আত্মা মিশাইএ বসে থাকরে হৃদয়-মাঝারে । কি জন্তে বা এক্ষণে আসবে সে বাহিরে ॥ তার ইচ্ছে যেমন হচ্ছে মন আছে রাজী, নইলে কি তারে ভুলে এ কাযে কৰ্ত্তেছি বাজী, পরে সাধ্য সাধন করে যেমন রাখবে তীরে অন্তরে ॥ ( ৩৫ ) ভাই রে যে আমারে সাধ করে পাথরে ডুবালে। বুদ্ধিমন্ত জগতে আর তার মত নাইকো কোন কালে । আমার আঙ্কেল যেমন করলাম তেমন বুঝে শুঝে, ডুবালে অগাধ জলে এককালে দরিয়ার মাঝে, আমার আক্কেল সাবুদ হলে কাবু কর্তে পারে কে, বুদ্ধির দোষেতে বিধি দুৰ্গতি করিলে আমাকে, বড় তুষ্ট হএ উসস পেএ তলিএ গিয়ে বলিছি তাই । ( రిఆ ) দেখ যার যেমতে এই ভবে হচ্ছে আনাগোনা। দেখতে পাচ্ছি আপনি পাচাপাচি তার বেওরা কেউ জানে না। দেখ আসতে যেতে পথে পথে দিন তো বয়ে যায়, তাই দরিয়ার মাঝে যে মজে হচ্ছে তার উপায়,