পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৯১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>brQ、 রাজার মণিপুর-গমন। বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় । - লক্ষণ নামেতে এক রাজার ভাতিজা। নারিল ধাইতে তবে আনিল ধরিয়া ॥ লুটপাট করি সব গাজি মহাবল। আগরতলাতে গেল মন কৌতুহল ॥ রণ জয় বাদ্য বাজে নাচে বীরগণ । তাহা শুনি মহারাজ আদেশে তখন ॥ এথাতে আইনু উদয়পুর ছাড়ি। তথাপি তাহার লাগি রহিতে না পারি। একেবারে ঘেরি পুনঃ কর মহারণ। অস্ত্র ধরিবারে যেন নারে শত্ৰগণ ॥ না হইতে একত্রিত গাজি-সৈন্তাগণ । বন হতে নিকলিয়া দিল তারা রণ ॥ এতেক দেখিল যদি গাজি-সৈন্তবর। ছাড়িল কামান গোল্লা করি আড়ম্বর ॥ গোল্লা-ঘায় বহু সৈন্ত হইল নিপাত। আচম্বিতে পড়িলেক যেন বজ্রাঘাত ॥ ধূমে অন্ধকার ধরা উপড়িল মুড়া। বৃক্ষ তরু ভাঙ্গি পড়ে হয়ে গুড়া গুড়া ॥ পড়িল বাহিনী বহু অশ্ব গজ আর । দহিল নগর আর আদি গৃহ দ্বার ॥ অল্প সৈন্ত সঙ্গে নিয়া মহারাজ ধায়। কেশরীর দৰ্পে যেন মাতঙ্গ পলায় ॥ পথে পথে মারে সৈন্ত তাড়ায়ে তাড়ায়ে। মণিপুরে গেল রাজা পলায়ে পলায়ে ॥ মণিপুর-মহারাজ দেখি হেন বেশ। ত্রিপুরা-রাজারে দিল জৈন্তাপুর দেশ ॥ এথাতে গাজির সৈন্ত হৈল এক ঠাই। ছয় হাজার ফিরে এল এক হাজার নাই। মনুগঙ্গা দক্ষিণের শ্রীহট্টের লোক । গাজি-সঙ্গে মিলে গেল পাই মুখভোগ ॥