পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৯২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
১৮৬৬
বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয়।

হারিয়া বচনে মনের ঠাঁই,
উত্তর কি দিবে বলিতে নাই,
কান্দিয়া কহিছে শুনহ ভাই,
কি করিব বলহে এখনে।
করিতে আসিনু জীবের হাট,
কত কত রূপ কতেক নাট,
বুঝিনু মোহের কারণে॥
বিস্তর ভুঞ্জিনু মোহের সার,
ঘৃত চিনি আদি বহু আহার,
আসন বসন ভূষণে।
শুনিনু অনেক লোকের গান,
রবাব পীণাক বংশীর তান,
দেখিনু অনেক নাট সুতান,
ভুলিনু ইহার কারণে॥
এখন বুঝিনু সকল ধন্দ,
সুপথ কুপথ বুঝে কি অন্ধ,
বুঝিতে নারিল মোহের ফন্দ,
সুপথ লইবে কেমনে।


কি করি এখন বলহ মন,
বুদ্ধিকে বলহ করি যতন,
যুক্তি করি মোরে বল বচন,
তরিব শমন যেমনে॥
কামিনী বদন দেখিনু ছলে,
কামেতে মজিনু মোহের বলে,
কুসুম বিশিখ বিষেতে জ্বলে,
হানিল মরম এখনে।
করেতে লইয়া বিষম বাণ,
গরল নিশান ক্ষুর সুশাণ,
হৃদয় অন্তর করি নিশান,
ভেদিল মরণ বীক্ষণে॥
মদন হইয়া সমন মোর,
মোহেতে নয়ন করিল ঘোর,