পাতা:বঙ্গ-সাহিত্য-পরিচয় (দ্বিতীয় খণ্ড).djvu/৯৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশিষ্ট—রাধামাধব ঘোষ–১৮শ শতাব্দীর মধ্যভাগ । (ক) স্বয়ং দূতী ৷ যথা, (কটাক্ষ) শুন সখী মাধব নয়ন তরঙ্গ । আপহি করতহি দূতীক রঙ্গ । যাকর উপর আসি পহু মিলে । তবহি বজর পারে তাকর মূলে । আন বহু দূর তুহু ধীর বর নারী। চঞ্চল হোয়ল চরিত তোহারি ॥ (বংশী—ললিতমাধবে) রাধামাধব ঘোষ-রচিত বৃহৎ সারাবলী । - g so বীরভূমবাসী ত্রযুক্ত শিবরতন মিত্র মহাশয় বলেন, “এই কাব্য বঙ্গীয় প্রাচীন সাহিত্যে বৃহত্তম গ্রন্থ। ইহা পঞ্চখণ্ডে সম্পূর্ণ—যথা, কৃষ্ণলীলা, রামলীলা, জগন্নাথলীলা, চৈতন্যলীলা, বুদ্ধলীলা। এই সমগ্র বৃহৎ সারাবলী গ্ৰন্থখানি ৯৫০০০ অর্থাৎ প্রায় লক্ষ শ্লোকে সম্পূর্ণ। সংস্কৃত সাহিত্যে বেদব্যাস-কৃত মহাভারত ব্যতীত অপর কোন ভারতীয় গ্রন্থের এরূপ খ্যাতি আছে বলিয়া আমরা অবগত নহি ।” ( বীরভূমি, ১ম বর্ষ, ১০ম সংখ্যা, ৪৯৩ পৃঃ )। রাধামাধব ঘোষ বাকুড়া জেলার দশঘর নামক গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ইহার পিতামহের নাম সাফুল্লিরাম ঘোষ এবং পিতার নাম রামপ্রসাদ ঘোষ। ইহার তিনটি পুত্র ছিল। বাকুড়া-প্রেস বৃহৎ সারাবালী কাব্যের কৃষ্ণলীলা, রামলীলা ও জগন্নাথলীলা গত ২০ বৎসর ধরিয়া মুদ্রিত করিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হইয়াছেন। বুদ্ধলীলা ও চৈতন্যলীলা র্তাহারা ছাপান নাই। কিন্তু প্রাচীন কবি বুদ্ধসম্বন্ধে কি লিখিয়াছেন, তাহ জানিবারই আমাদের বিশেষ কৌতুহল জন্মিয়াছিল। আমরা সেই অংশ পাই নাই । >b-b-Q