পাতা:বত্রিশ সিংহাসন - নীলমণি বসাক.pdf/১৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

১৬৮

বত্রিশ সিংহাসন।

আমার অপরাধ নাই, কর্মের যে অবশ্যম্ভাবী ফল তাহাই হইয়াছে। এই বিষয়ের প্রত্যক্ষার্থ, আমি তােমাকে পুষ্প আনয়ন স্থলে প্রেরণ করিয়াছিলাম। এইক্ষণে তােমার প্রতীত হইল। অতএব এ সকল কথা ব্যক্ত করিওনা। কেননা তাহা শুনিলে অন্য লােকে রাজ্য লাভের লােভে যােগারম্ভ করিবে। ইহা বলিয়া রাজা তাহাকে চির কালের নিমিত্ত সকল মন্ত্রীর প্রধান করিয়া রাখিলেন।

 করুণাবতী এই বিবরণ সমাপন করিয়া বলিল শুন ভােজরাজ, রাজা বিক্রমাদিত্যের তুল্য যে ব্যক্তি পুণ্যাত্মা, গুণগ্রাহী ও সর্ব্বগুণান্বিত, তিনিই এই সিংহাস- নােপবেশনের ইচ্ছা করিতে পারেন। হে ভোজরাজ তুমি ততুল্য নহ, অতএব তাহার আসনে কি প্রকারে অধ্যাসীন হইবে।

 এই কথা শুনিতে শুনিতে সে দিবসের শুভক্ষণ অতীত হইল, সিংহাসনােপবেশন করা হইল না। পর দিবস রাজা পুনর্ব্বার তদভিলাষে সিংহাসনসান্নিধ্যে উপস্থিত হইলে,

চিত্রকলা চতুর্ব্বিংশ পুত্তলিকা

কহিল, হে ভােজরাজ, আমি, রাজা বিক্রমাদিত্যের গুণের এক প্রসঙ্গ কহিতেছি, অবধান কর।

 এক দিবস রাজা দশহর যােগে নদীতে স্নানার্থে। গমন করিয়া ছিলেন। তথায় গিয়া দেখিলেন এক পরমসুন্দরী যুবতী নদীতটে দণ্ডায়মান হইয়া কেশ