পাতা:বত্রিশ সিংহাসন - নীলমণি বসাক.pdf/৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৮৬

বত্রিশ সিংহাসন

রাজা রাজধানীতে উপনীত হইয়া মন্ত্রীকে আজ্ঞা করিলেন একটা সকুলােদ্ভব জ্ঞানবান, ব্রাহ্মণকুমার অন্বেষণ করিয়া আন। মন্ত্রী অন্বেষণ করিয়া মার্কণ্ডেয় নামে পরম সুন্দর এক ব্রাহ্মণকুমারকে আনিয়া উপস্থিত করিলেন। রাজা ঐ বিপ্রনন্দনকে কহিলেন আমার নিকট এক ব্রাহ্মণকন্যা আছেন, আমি তােমাকে ঐ কন্যা সম্প্রদান করিতে বাঞ্ছা করি, যদি তুমি তাহার পাণিগ্রহণে সম্মত হও, বল, তাহার আয়ােজন করি। বিপ্রতনয় সম্মতি প্রকাশ করিলেন। পরে রাজা বিবাহের উদ্যোগ করিয়া বস্ত্রালঙ্কার দিয়া কন্যাদান করিলেন, এবং ব্রাহ্মণকুমারকে লক্ষ মদ্রা যৌতুক দিলেন। অতএব হে ভােজরাজ তুমি কি বিবেচনায় তাঁহার সিংহাসনে উপবেশন করিতে বাসনা কর। তুমি গুণগ্রাহক বট, কিন্তু রাজা বিক্রমাদিত্যের যেমন ধর্ম্মজ্ঞান ও সাহস ছিল, তােমার সে প্রকার নাই, তােমার এই সিংহাসনে বসিবার বাসনা বিফল।

 ইহা শুনিয়া ভােজরাজ কোন উত্তর করিলেন না। পরদিন যখন পুনর্ব্বার সিংহাসননাপবেশন করিতে আগমন করিলেন তখন,

কীর্তিমতী দ্বাদশ পুত্তলিকা

কহিল মহারাজ অবধান কর।

 একদিন রাজা বিক্রমাদিত্য সভারূঢ় হইয়া সভাসদ