পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/১১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চম অধ্যায়—এচড়চড়ী । సెX AASAASAASAASAASAASAASAASAAAS আলু, ফুলকোবি অথবা ওলকোবি অথবা সালগম এবং কলাইগুটী এবং স্কোয়াস লইয়া ঈষৎ লম্বা ছাদে বানাও । স্বতন্ত্রভাবে কষাষ্টয়া রাখ। তৈলে তেজপাত, লঙ্কা, কালজিরা ও মেথি ফোড়ন দিয়া পরে পেয়াজ ফোড়ন দাও । পেয়াজ ঈষৎ লাল হইলে মাছ ছাড় । আংসাও । মুণ, হলুদ ও লঙ্কাবাটা দাও। নড়িয়া চাড়িয়া জল দাও । ফুটিলে কষাণ আনাজ ছাড় । গোট কয়েক র্কাচ লঙ্কা চিরিয়া ছাড় । সিদ্ধ হইয়া জল শুকাইলে সরিষা বাটা দিয়া নাড়িয়া চড়িয়া নামাও । একটু সরিষার তেল মিশাও । پهیسه . বড় বড় গলদ ও মোচা চিণ্ডড়া, কাকড়া এবং কোন কোন সামুদ্রিক মাছের এই প্রকারে ফুলকোবি কলাইগুটী দিয়া চড়চড়ী রাধিতে পার। এই চড়চড়ীর আনাজ, মৎস্ত কোনটাই বরেন্দ্র-সুলভ নহে সুতরাং পুৰ্ব্বকালে ইহার প্রচলন ছিল না,—আজিকালি হইয়াছে। তবে রন্ধন-প্রণালী অবগু বারেন্দ্র বটে। ১০৬। চুচড়া মাছের চড়চড়ী রুই মাছ চড়চড়ীর ছায় আলু, পটােল, বেগুন, মূলা সহ চুচড়া মাছেরও অতি চমৎকার চড়চড়ী হইয়া থাকে। অধিকাংশ স্থলেই নানাবিধ চুচড়া মাছ এক সঙ্গে মিশাইয়া এই চড়চড়ীতে দেওয়া হইয়া থাকে। ক্ষুদ্র মাছে সাধারণতঃ শুক্লা লঙ্কা বাটা দেওয়া যায় না । পেয়াজ ফোড়ন দিলে তবে স্বাদ উৎকৃষ্ট হয়। ছোট মাছ হইলে গোটা রাখিয়া কুটিয়া লইবে এবং মাছ ঈষৎ বড় হইলে আবশুকমত দুই বা তিন খও করিয়া লইবে । আনজগুলি কুটিয়া পূৰ্ব্বে আলাদা আলাদা কাইয়া লও। তৈলে তেজপাত, লঙ্কা, মেথি ও পেয়াজ ফোঁড়ন দিয়া কুণ, হলুদ মাখা মাছ ছাড় । (অধিক পরিমাণে মাছ হইলে পূৰ্ব্বে মাছগুলি তেলে কষাইয়া লইলে স্ববিধ হয় )। আংসাও কষান আনাজ ছাড়। মুণ হলুদ দিয়া জল দাও গোটা কয়েক র্কাচ.লঙ্ক চিরিয়া ছাড়। সিদ্ধ হইয়া জল শুকাইয়া গেলে সরিষা