পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/১৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ᎼᎼby 龜 বরেন্দ্র রন্ধন যাহাতে তাহা মাছ তরকারীতে দিলে গলিয়া না যায়। বরেন্দ্রে ছোট ছোট সবুজ বর্ণ ও বহু কণ্টকবিশিষ্ট এক প্রকার বেগুন পাওয়া যায় যাহাকে গৃহস্থী’ বা ‘কড়ই বেগুন কহে । ইহা এক বৃন্তে বহু ফলে। ইহা মাছ তরকারীতে দেওয়ার জন্যই উৎপন্ন হইয়া থাকে। এই ছোট গৃহস্থী কড়ই বেগুনই মাছ-তরকারীতে দিবে। ১৩৯ ৷ বোয়াল মাছের ভাঙ্গা বোয়াল মাছের ভাঙ্গা রুই মাছের মতই শলুপ শাক যোগে রাধিবে, কেবল তাহাতে অতিরিক্ত কালজির ফোড়ন দিবে। আইড়, শিলঙ প্রভৃতি তৈলাক্ত মাছের ভাঙ্গা এই প্রকারে রাধিবে। শলুপ শাকের পরিবর্তে হালি পার্শলী, সেলের প্রভৃতি শাকের কুচিও মিশাইতে পার। ১৪০ । ইলিশ মাছের ভাঙ্গা পটােল ও কাটালবীচি অথবা যজ্ঞডুমুর দিয়া ইলিশ মাছের অতি সুন্দর ‘ভাঙ্গা’ হইয়া থাকে। টাটকা অপেক্ষা কিঞ্চিৎ নরম ইলিশ মাছেরই ভাঙ্গা অধিকতর মুম্বাদু হয়। ইলিশ মাছের ভাঙ্গায় আলু, বেগুন প্রভৃতি আনাজ সাধারণতঃ ব্যবহৃত হয় না, তবে বিলাতী কুমড়া ব্যবহৃত হইতে পারে। আনাজের অনুপাতে মাছ যেন কম না পড়ে, তাহা হইলে ভাঙ্গার আস্বাদন ভাল হইবে না । পটােল ও কাটালবীচি ছোট ছোট ডুম ডুমা করিয়া কুট । তৈলে কষাইয়া রাখ। ইলিশ মাছ সাধারণভাবে কুটিয়া লইয়া মুণ হলুদ মাখ। তৈলে তেজপাত, লঙ্কা, মেথি ফোড়ন দিয়া মাছ ছাড় । আংসাও । পুনঃ কিঞ্চিৎ মুণ হলুদ ও একটু লঙ্কা বাট দিয়া জল দাও । ফুটিলে কষান আনাজ ছাড়। সিদ্ধ হইলে হাত দিয়া মাছ ভাঙ্গিয়া সমস্ত মিশাইয়া দাও । জল শুকাইলে নামাও । পিঠালী দিবে না । o