পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/১৯৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


軍* リー尋阿l ১৭৩ কাইয়া রাখ। স্বতে, অভাবে তেলে জিরা, তেজপাতা, লঙ্কা ফোড়ন দিয়া মাছ ছাড় । আংসাও । ধনিয়া বাট ও লঙ্কা বাটা অল্প জলে গুলিয়া ঢালিয়া দাও । আংসাও । ভাজা মশলার স্বগন্ধ বাছির হইলে চেলেনী জলে মুণ (হলুদ ) গুলির ঢালিয়া দাও। ফুটিলে ক্যান আলু ও বুট (ভিয়ান) ছাড় - সিদ্ধ হইলে জিরা-মরিচ ৰাট, তেজপাত বাট ও একটু চিনি দিয়া ঝাল রস গাঢ় গোছ হইলে নামাও । একটু গাওয়া ঘি মিশাও । ইচ্ছা করিলে ধনিয়া পূৰ্ব্বেই কাটখোলায় ভজিয়া গুড়া করিয়া লইয়া জিরা-মরিচ প্রভৃত্তি বাটনার সহিত একত্রে জল দিয়া একটু বাটিয়া লইয়া মিশাইতে পার। চেলেনী জলের পরিবর্তে নারিকেল দুগ্ধ দিয়াও রাধিতে পার। বাইম মাছের কলাপতু এই প্রকারে রাধিবে। ২০৬ । ‘মনোমোহিনী ক্ষ বাল-চড়চড়ী এই ঝাল-চড়চড়ীতে আনাজের মধ্যে কেবল মাত্র আলু, বেগুণ, ( বেঁটার দিকের অংশ দ্বারাই ভাল হয় ), গাভ থোড় ও বিলাতী ( মিঠা ) কুমড়া ব্যবহৃত হইয়া থাকে, এবং ইহা পাকা রোহিতাদি মৎস্তের মুড়া-কঁটগাদ যোগে রাধা হইয়া থাকে । ইহার আস্বাদন প্রকৃতই মন মোহন করে। অনার্জ ডুম ডুমা করিয়া কুটিয়া পৃথক পৃথক ভাবে তৈলে কষাইয়া লও। রুই মাছের মুড়া-কাটা-গাদাও তেলে কষাইয়া লও। স্কৃতে জিরা, তেজপাত, কালজিরা ও লঙ্কা ফোড়ন দিয়া কষান মাছ ও আনাজ ছাড়। কুণ, হলুদ ও লঙ্কা বাট দিয়া জল দাও। সিদ্ধ হইলে মুড়া ভাঙ্গয়া দিয়া জিরামরিচ বাট ও তেজপাত বাট মিশাও । শুকনা শুকনা করিয়া নামাও । ইচ্ছা করিলে একটু ভাজা রাধনীর গুড়া মিশাইতে পার। SS S BB BBBB BBBBB BB BBB D DD DBB BBBB DDDS Bহার নামেই ইহার নামকরণ করা গেল ।