পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/১৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


একাদশ অধ্যায়-কালিয়া । >ፃ « পোস্তদানা বাট প্রভৃতি মিশান হইয়া থাকে। বরেক্সে ‘ডালনার প্রচলন নাই, তৎপরিবর্তে ‘কাল’ ও ‘কালিয়া’ প্রচলিত আছে । ২০৭। আলুকোবির কালিয়া আলু ডুম ডুমা করিয়া কুট। স্বতে কষাও। ফুলকোবি অপেক্ষাকৃত ছোট ছোট করিয়া কুট। ঘৃতে কষাও । এই কষানটা অবশু তেলেও চলিতে পারে, তবে কালিয়৷ রন্ধনে ঘৃত ব্যবহারই প্রশস্ত। ঘুতে জিরা, তেজপন্ত লঙ্কা ও দুটো গরম মশল্ল ফোড়ন দিয়া লঙ্কা বাট, ধনিয়া বাটা ও হলুদ বাট অল্প জলে গুলিয়া ছাড় । আংসীও - মশল্পা ভাজা ভাজ হইয়া স্বৰ্গন্ধ বাহির হইলে জল দাও । ফুটিলে কষান আলু, ফুলকোবি ও কাচা কলাইগুটি ছাড় । মুণ দাও। সিদ্ধ হইলে একটু চিনি দাও । কাল-রস ঘন হইলে নামাইয়া জিরা-মরিচ বাট, গরম মশল্লা বাট এবং কিঞ্চিৎ ঘৃত মিশাও । কেহ কেহ ইহার সহিত অমরস, যথা দহি, তেঁতুল গোলা প্রভৃতিও মিশাইয়া থাকেন। আলুর সহিত পটোল, পক্ষীর ডিম্ব, শালগম, বাধাকোবি, ওলকোবি, স্কোয়াস, শুধু পটােল, প্রভৃতির একত্রে বা পৃথক পৃথক ভাবে কালিয়া রাধিতে পার। বাধাকোবি কুচি কুচি করিয়া কুটিয়া লইবে । বাটতে অতিথি আসিলে লুচীর সহিত সচরাচর এই প্রকার একটি কালিয়া রাধিয়া ‘জল খাইতে দেওয়া যায়। ২০৮ । ই চড়ের কালিয়া ইচড় ডুম ডুমা করিয়া কুট। একটু ভাপ দিয়া লও। স্বতে জিরা, তেজ পাত, লঙ্কা ও গরম মশল্প। ফোড়ন দিয়া ইচড় ছাড় । আংলাও । লঙ্কা বাট মুণ ও হলুদ জলে গুলিয়া ঢালিয়া দাও। ফুটিলে ক্যান ছোট ডুম কুটা আলু ও ভিজান বুট ছাড়। আলু ও বুটের পরিবর্তে কষান ছোট ছোট চিওড়ী , মাছ দিলে আস্বাদন অতি উত্তম হয়। সিদ্ধ হইলে জির মরিচ বাটা, তেজপাত