পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/২১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


একাদশ অধ্যায়-কালিয়া । . مدد ১২৯ ৷ চিঙড়ী মাছের শুষ্ক-কারী পক্ষী-কারী রাধার বিধানে চিঙড়ী প্রভৃতি মাছেরও উত্তম গুৰু-কারী রায় হইয়া থাকে। কিন্তু চিংড়ী মাছ অধিক কষাইলে শক্ত হইয়া যায় বলিয়া স্বতে পূৰ্ব্বে গোট গরম মশলা ও পেয়াজ কুচি ফোড়ন দিয়া তাহাতে-হলুদবাট, লঙ্কা বাট, ধনিয়া বাটা, আদা বাটা, রশুল বাট, ছাড়িয়া কষাইয়া লও। ভাজা মশল্পার স্বগন্ধ বাহির হইলে জল দাও । ফুটিলে কুঁচা, ছিঃস মাছ, কলাইণ্ডটি এবং কষান ফুলকোবি, সালগম, ওলকোবি, আলু, স্কোয়াস, লাউ, শশা প্রভৃতি মধ্যে এক বা একাধিক আনাজ ছাড় । মুণ ও একটু চিনি দাও । সিদ্ধ হইলে জিরা-মরিচ বাটা, তেজপাত বাট ও প্রয়োজন হইলে একটু পিঠালী দিয়া শুকুনা শুকৃনা করিয়া নামাজ । একটু ঘি ও গরম মশল্প বাট মিশাও। আলু, ফুলকোবি, কলাইগুটি প্রভৃতির যোগে চিঙড়ী মাছের বা কাকড়ার এই প্রকার শুষ্ক-কারী অতি উপাদেয় হয়। রুই, আইড়, মাগুর প্রভৃতি মৎস্তেরও উত্তম শুষ্ক-কারী রাধ হইয়া থাকে। মাছ পূৰ্ব্বে মুণ হলুদ মাখিয়া স্বতে কষাইয়া রাখ। পরে স্বতে গোটা গরম মশল্পী ও পেয়াজ কুচা ফোড়ন দিয়া হলুদ বাটা, লঙ্কা বাট, ধনিয়া বাট, আদা বাট ও রগুন বাট ছাড়িয়া কথাও । জল দাও । ফুটিলে কষান মাছ ও তৎপর কষান আলু, ক্যান ফুলকোবি প্রভৃতি এবং কাচা কলাইগুটি ছাড়। সিদ্ধ হইলে মুণ, জিরা-মরিচ বাটা, তেজপাত বাট মিশাইয়া পরে পিঠালী দিয়া ঝোল ঘন করিয়া অথবা এককালে শুকাইয়া নামাও । ঘি ও গরম : মশল্পা বাট মিশাও । ১৩০ ৷ কোপ্ত (Ball) কারী ভাজি অধ্যায়ে ( ৭০ পৃষ্ঠায়) লিখিত বিধানে মৎস্ত মাংসাদির কোপ্ত? জজিয়া রােখ। স্বতে তেজপাত, গরম মশল্প ও পেয়াঙ্গ কুচা ফোড়ন দিল্প ళి