পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যায়—সিদ্ধ। ૨ઉઃ জল দাও । হাড়ির মুখ ঢাকিয়া জালে উঠাইয়া দাও । জলের রঙ্গ লালচে হইয়া তিন ভাগের দুই ভাগ মত দাড়াইলে নামাইয়া ছকিয় জলটুকু রাথ । চাউলের অৰ্দ্ধেক বা বারো আনা মত উত্তম পাকা রুই মাছ লইয়া অপেক্ষাকৃত বড় বড় মোট মোট খণ্ডে কুটিয়া মুণ হলুদ মাখিয়া ঘৃতে লালচে করিয়া ভাজিয়া রাখ। উত্তম পুরাণ মিহি আতপ চাউল পরিষ্কার করিয়া ধুইয়া মেলাইয়া শুকাও ৷ তৎপর জাফরান মাখিয়া সের করা পাচ ছটাক মত ঘৃতে ঈষৎ ভজিয়া লও, কিছু গরমমশরা প্রভৃতির ছাকা গুড়া ও বাদাম পেস্তাকুচা এ কিসূমিস মিশাও । একটি হাড়ির তলায় খানকয়েক তেজপাত বিছাইয়৷ তদুপরি ঐ চাউল— সাজাইয়া দাও। চাউলের উপর ভাজা মাছ সাজাও—পুনরায় চাউল সাজাও—পুনরায় তদুপরি ভাজা মাছ সাজাও—পুনরায় তদুপরি চাউল সাজাও এবং সৰ্ব্বোপরি আখনির জল সাবধানে ঢালিয়া দাও । জল চাউলের উপর চারি আঙ্গুল পরিমিত রাখিবে। হাড়ির মুখ ঢাকিয়া জালে উঠাইয়া দাও। চাউল সিদ্ধ হইবা মাত্র উনান হইতে হাড়ি উঠাইয়া উনানের এক পাশ্বে অল্প আঁচে দমে বসাইয়া রাখ। মুসিদ্ধ হইয়া জল শুকাইয়া গেলে নামাও । ভাজা মাছের সহিত ইচ্ছা করিলে লালচে করিয়া ভাজিয়া আলু, কোবি, কড়াই কটা, বাধা কোবি, শালগম পেয়াজ প্রভৃতি এক বা দুই প্রকারের আনাজ একত্রে সাজাইয়া দিয়া পোলাও পাক করিতে পার। রুচী অনুসারে ইহাও লঘু গুরুভেদে রাধিতে পার। মাছের পোলাওয়ের সহিত মৎস্ত বা মাংসের কালিয়া, কারি, কোম্ম, কিম-কাবাব কিম্বা মাছের মুড়ী ঘণ্ট ডাইল থাইতে পার।