পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


| তৃতীয় অধ্যায়—ভাজি । HI লম্বা করিয়া কুটিয়া লও। একটু ভাপ দিয়া লও। তৈলে লঙ্কা ও সরিষার গুড়া ফোড়ন দিয়া শুট ছাড় । আংসাও । মুন হলুদ দাও। নাড়িয়া চাড়িয়া নামাও । © ৪৩। সজিন ফুল ভাজি ফুল একটু ভাপ দিয়া জল গালিয়া লও। বেগুণ ডুম ডুমা করিয়া কুট । তৈলে শুক্লা লঙ্কা ও সরিষার গুড়া ফোড়ন দিয়া শাক বেগুণ ছাড় । তাংসাও । কুণ হলুদ দিয়া নাড়িয়া চড়িয়া নামাও । ৪৪ । মটর শাক ভাজি লকলকে দেখিয়া মটর শাক বাছিয়া লও। তৈলে শুধু কাচ লঙ্ক ফোড়ন দিয়া শাক ছাড়। আংসাও । মুণ, হলুদ ও একটু চিনি দিয়া ঢাকিয়া দাও । ইহাতে শাক নরম হইবে, না হইলে একটু জল দিয়া সিদ্ধ করিয়া শুকাইয়ানামাইবে । শাক অধিক ভাজিলে চিমড়া হইয়া যায় এবং তাহার রঙ্গ ও খারাপ হইয়া যায়। এই শাকের সহিত কচি বেগুণ ছোট ছোট করিয়া কুটিয়া মিশাইয়া ভাজিতে পার। এবং প্যাজের ফুস্কা (কলি) কুটিয়া মিশাইয়াও ভাজিতে পাব । কাচা লঙ্কার সহিত প্যাজ ফোড়ন দিয়াও মটর শাক ভাজা যাইতে পারে। মুগ ও মাষকলাইয়ের ডালের খিচুড়ীর সহিত মটরশাক ভাজি খাইতে ভাল। ঢাকা ( টেকী ) শাক, শুশুনী শাক, বিবিধ ডাটা শাক, বিবিধ নটিয়া শাক প্রভুতি এই প্রকারে ভজিবে। ৪৫ । বথুয়া শাক ভাজি তৈলে কাচা লঙ্কা ফোড়ন দিয়া মুণ হলুদ সহ বথুয়া শাক ভজিবে। সলুপ শাকের সহিত মিশাইয়া.বথুয়া শাক ভাজে, আবার তৎসহ পুনকা শাকও মিশাইয়া ভাজ হইয়া থাকে।