পাতা:বরেন্দ্র রন্ধন.djvu/৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


&ly বরেন্দ্র রন্ধন। AAAAAA AAAA AAAA AAAAe MA AMAeeAeAeeAeBS কিঞ্চিৎ অমরস, চিনি ও পরিশেষে ঘৃত মাখিয়া প্রদীপ্ত গমগমে অঙ্গারের উপরে বা এক পাশ্বে অতি নিকটে ধরিয়া অথবা শিকটি দুইটি আশ্রয় দণ্ডের উপর স্থাপন করিয়া ঘুরাইয়া ঘুরাইয়া ঝলসাও । মধ্যে মধ্যে পাখীটি স্বতসিক্ত করিবে, যেন ছেচড়া পোড়া হইয়া না যায়। প্রথমে আগুণের খুব সন্নিকটে ধরিয়া ঝলসাইবে । উপরে একটু লালচে হইলেই অপেক্ষাকৃত তফাতে ধরিয়া ঝলসাইবে । তাহা হইলে উপরিভাগ ঈষৎ কঠিন হইয়া অভ্যস্তরের রস নির্গম পথ রন্ধ করিবে এবং পরে তফাতে রাখিলে ধীরে ধীরে অভ্যন্তর ভাগ স্নপক হইবে অথচ উপরে আর অতিরিক্ত পুড়িয়া যাইবে না। উপরন্তু পত্নী আগুণের উপর হইতে সরাইয়া ঐক পার্শ্বে ধরাতে তাপে পক্ষীর গাত্র হইতে যে বি টপ টপ করিয়া গড়াইয়া পড়িবে তাহ আগুণের উপর পড়িয়া নষ্ট না হইয়া নিচে একখানা পাত্র রাখিয়া ধরা যাইবে । ঝলসান ঠিক হইয়াছে কিনা জানিবার জন্ত একটি তীক্ষ লৌহ-শলাকা মধ্যে মধ্যে পার্থীর । গায়ে ফুড়িয়া দিয়া দেখিবে মাংস বেশ মোলয়েম হইয়াছে কি না। সরস রহিয়া স্থপক হইয়াছে বুঝিলে নামাইবে । শুল্যের রঙ্গ সুন্দর লালাভ করিবার প্রয়োজন হইলে এক খণ্ড উত্তপ্ত লৌহ এই সময়ে পক্ষীর গায়ের উপর দিয়া অথচ গাত্র স্পর্শ না করিয়া বুলাইয়া লইবে । হাসের দ্যার অপরাপর পক্ষী, খরগোশাদি, হরিণ, পাঠা বা ভেড়ার রাঙ্গ বা শিরদাঁড়ার কোমল মাংসে শুল্য হইতে পারে। ওয়ারেনের কুকিং পট,’ ‘ইকমিক কুকার বা জগে পক্ষী, খবগোশাদি গোটা বা খণ্ড খণ্ড করিয়া পুরিয়া মুণ, মরিচ গুড়, আল পেয়াজদি বাটা সহ জলের ভাপের উন্তাপে বেক’ বা পুট-পাক করিয়াও মুন্দর কাবাব রাধ যায়। গ্রিলদানীর দ্যায় এক প্রকার বেকিংপ্যানে বা পাত্রে করিয়া গোট পরিষ্কৃত পক্ষী খরগোশদি উত্তপ্ত তুন্দর বা তেজালের মধ্যে রাখিয়া বেক’ বা পুটপাক করিলেও অতি সুন্দর কাবাব প্রস্তুত হইবে। তৎক্ষেত্রে পক্ষীর