পাতা:বাংলার পাখি - জগদানন্দ রায়.djvu/১৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বাংলার পাখী। ১৭৩ • ডাঙায় উঠিয়া বেড়াইতে দেখি নাই। বােধ করি ডানা ছোটো এবং লেজ নাই বলিয়া ইহাৱা ডাঙায় উঠতে ভয় পায়। অধিকাংশ বুনো হঁহাই শীতকালে আমাদের দেশে চরিতে আয়ে, এবং গ্রীষ্ম পড়িলে ঠাণ্ডার দেশে চলিয়া যায়। কিন্তু ডুবুরিরা তাহা করে না। ইহারা বারো মাসই আমাদের দেশে থাকে এবং এখানেই ডিম পাড়ে ও সন্তান পালন করে। SSDLB BDB Y SDDDLLLz DBDBB BB KgBD KSD KYD ডালে খড়কুটা জমা করিয়া বাসা বাঁধে। কিন্তু ডুবুরিদের বাসা তৈয়ারি করার রীতি সেরকম নয়। ইহারা বর্ষাকালে ডিম পাড়ে। ঐ সময়ে খাল ও বিলের মধ্যে কত ঝোপ-জঙ্গল থাকে, তাহা বোধ করি তোমরা দেখিয়াছ । ডবুরিরা ঐসব জঙ্গলের মাথায় শুকনা শেওলা ও খড়কুটা জড় করিয়া সেখানে ডিম পাড়ে । তা ছাড়া জলে যে ডালপালা ভাসিয়া বেড়াইতেছে, তাহার উপরে খড়কুটা পাতিয়া ডুবুরিরা ডিম পাড়িয়াছে, ইহাও অনেক দেখা গিয়াছে। ডিম পাড়া হইলে- ডিমে তা দিবার জন্য পাখীরা কি-রকম বাস্ত থাকে, তাহা তোমরা আগে শুনিয়াছ । কিন্তু ডিমে তা দিবার জন্য ডবুরিদের সে-রকম ব্যস্ত দেখা যায় না। দিনের বেলায় ইহারা ভিজে শেওলা দিয়া ডিমগুলিকে ঢাকিয়া রাখে। তার পরে রাত্ৰি হইলে বাসায় গিয়া তায়ে বসে। নকি-হাঁস বোধ করি তোমরা সকলে দেখ নাই । ইহাদের কেহ কেহ নকৃত-হাঁসিও বলে। ইহারা বারো মাসই