পাতা:বাংলার পাখি - জগদানন্দ রায়.djvu/৬২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ৰাংলায় পাখী 8ტ. થારે તશ DD S SDBLB DB BDB BgDD DDDB DDS LBD DDS DD BB BBBLBDS DD BDBD DDDB BuD DDL DBB DDBB BBDB DD gBDL DgDB DBBDD করিয়া উড়িয়া গেল, ইহাও আমরা অনেক দেখিয়াছি। গরুগুলো নিতান্ত বোকা, তাই ফিঙেদের সঙ্গে ঝগড়া বাধায় না। যাহা হউক, ফিঙের গৃহস্থের বাড়ীতে চরিতে আসে না। তাহা না হইলে এই পাখীদের জ্বালায় গৃহস্থদেরও अष्ट्रिन्न ठ्छेrऊ झ्छेऊ । যাহা হউক, পাখীদের মধ্যে সকলেরি সহিত যে ফিঙেদের ঝগড়া, একথা বলা যায় না। ঘুঘু ও হলদে পাখীদের সঙ্গে, DDDD DDDDD SLDDDL S SDDD SDBSBBSDD BBBD DB DB সেখানে খোঁজ করিলে প্রায়ই ঘুঘু ও হলদে পাখীদের বাসা দেখা যায়। দারোগার বাড়ীর কাছে গৃহস্থের বাড়ী থাকলে গৃহস্তের আর চোর-ডাকাতের ভয় থাকে না। সত্যই ফিঙেরা পুলিস-দারোগার মতো জবরদস্ত পাখী। তাই হলদে ও ঘুঘু পাখীরা তাহদের আশ্রয়ে বেশ নিশ্চিন্ত থাকে। হিন্দুস্থানীতে ফিঙে, পাখীকে কি বলা হয় তোমরা বোধ হয় তাহা জানো না। ফিঙের হিন্দুস্থানী নাম-কোতোয়াল অর্থাৎ দারোগা পাখী। দারোগার কাছে চোর-ডাকাত যেমন জব্দ থাকে, ফিঙেদের কাছে অন্য পাখী দিগকে ঠিক সেই রকমেই শিষ্ট-শান্ত থাকিতে দেখা যায়। এই সাধারণ ফিঙে ছাড়া আমাদের দেশে “বাচাঙ্গা” নামে