পাতা:বাংলার ব্রত - অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

Sbም व९ळांद्र बड পশ্চিম-দেশে হোলির উৎসব একটি অতি প্ৰাচীন অনুষ্ঠান । এই হোলি-উৎসব বা বসন্তের ব্ৰতকে শাস্ত্ৰসিদ্ধ বলে ধরার জন্যে মীমাংসা-দর্শনে হোলিকাধিকরণ বলে একটা অধ্যায় লিখতে হয়েছে। এবং এই অধ্যায়ে যে-সমস্ত হিন্দুর ধর্মকর্মের বা ব্যবহারের বেদাদিশাস্ত্ৰপ্ৰমাণ পাওয়া যায় না, সে-সমন্তই হোলিকাধিকরণান্তায়-মূলক-সিদ্ধ বলা হয়েছে। এটিকে হিন্দুশাস্ত্রকার মেনে নিলেন এবং এর সঙ্গে সমস্ত লৌকিক ব্ৰতকে হিন্দুর বলে স্বীকার করেও নিলেন দেখছি ; কিন্তু শুধু এইখানে শাস্ত্রকারদের কর্ম শেষ হল না, পুরনো বা অশাস্ত্রীয় ব্ৰতগুলোর রূপান্তর করে শাস্ত্রীয় বলে চালাবার চেষ্টাও হয়েছে দেখি। আবার নতুন নতুন ব্ৰত, নিজেদের মনগড়া, তাও স্বষ্টি হচ্ছে দেখা যায়। যেমন অক্ষয়তৃতীয়া, অঘোর চতুর্দশী, ভূতচতুর্দশী, নৃসিংহচতুর্দশী, এমনি কতকগুলি ব্ৰত তিথিমাহাত্ম্য প্রচারের জন্য। জ্ঞানত বা অজ্ঞানত বিশেষ তিথিতে যদি কোনো পুণ্যকাৰ্য করা যায়। তবে তার দ্বারা মানুষের পুণ্য অর্জন এবং সৌভাগ্য ঘটে - এই হল ব্ৰতগুলির মোট কথা। আর কতগুলি ব্ৰত হিন্দুদের দেবদেবীর মাহাত্ম্যপ্রচারের জন্য। যেমন অনন্তব্ৰত ইত্যাদি। কতকগুলি গ্ৰাম্যদেবতার ব্ৰত- পুত্ৰকামনা, সৰ্পভয়নিবারণ, এমনি সব কামনা ক’রে ; এগুলি মেয়েরাই করে। যেমন অরণ্যষষ্ঠী, নাগপঞ্চমী, নিত্যষষ্ঠী, সুবচনী, শীতলা, বুড়োেঠাকরুণ, ঘেটু, কুলাই, भूलांझे देडां।ि এই-সব গ্ৰাম্যদেবতার প্রতিদ্বন্দ্বীস্বরূপ কতকগুলি শাস্ত্রীয় দেবতা এবং তাদের ব্রত রয়েছে; যেমন কাতিকের ব্ৰত। ষষ্ঠদেবী পুত্ৰদান করেন, কাতিকও তাই। তার পর কতকগুলি ব্ৰাহ্মণদের মনগড়া ব্ৰত - যেমন দধিসংক্রান্তি, কলাছড়া, গুপ্তধন, ঘূতসংক্রান্তি, দাড়িম্বসংক্রান্তি, ধন-গোছানো এগুলি কেবল নৈবেদ্য ও দক্ষিণার লোভ থেকে পূজারিরা সৃষ্টি করেছে। কলাছড়ায় ব্ৰাহ্মণকে কলা দান, সন্দেশের ভিতর পয়সা দিয়ে গুপ্তধন, ঘূত দাড়িম্ব এই সব জিনিস বিশেষ-বিশেষ তিথিতে ব্ৰাহ্মণকে দিলে ভালো হয়এই ব্ৰতগুলির মূলকথাটা এ ছাড়া আর-কিছুই নয়। তার পর কতকগুলি ব্ৰত