পাতা:বাংলার ব্রত - অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

Ras SVS ○> শস্য উৎসব। কিন্তু পূজারিরা লক্ষ্মীব্ৰতের মাহাত্ম্য বর্ণন করে যে শ্লোকটি মেয়েদের শুনিয়ে দেন, সেটা থেকে কিছুতে বোঝা যাবে না যে এই ব্ৰত অফলন্ত, ফলন্ত এবং সুপক শস্যের উৎসব-অনুষ্ঠান । শাস্ত্রীয় শ্লোক বলছে লক্ষ্মীনারায়ণ ব্ৰত সৰ্বব্ৰত সার এ ব্ৰত করিলে ঘোচে ভবের আঁধার । বন্ধ্যা নারী পুত্ৰ পায়, যায় সর্ব দুখ, নির্ধনের ধন হয়, নিত্য বাড়ে সুখ । ধানের কি কোনো শস্যের নামগন্ধ এতে পাওয়া গেল না। প্ৰাচীন কালের প্রধান উৎসব এবং শস্য-দেবতারা খুবই প্ৰসিদ্ধ বলে এই ব্ৰতকে হিন্দুয়ানির চেহারা দেবার জন্য এর উপর এত জোড়াতাড়িার কাজ চলেছে যে আসল ব্ৰতটি কেমন ছিল, তা আর এখন কতকটা কল্পনা করে। দেখা ছাড়া উপায় নেই । কিন্তু যে ব্ৰতগুলি ছোটো এবং অপ্রধান বলে শাস্ত্রের হাত থেকে বেঁচে গিয়ে অনেকটা অটুট অবস্থায় রয়ে গিয়েছে তার থেকে ব্ৰতের খাঁটি ও নিখুঁত চেহারাটি পাওয়া DBDDBDDSS BBBD TgDBD S SDBBBS DDBDB S SBDDL একে বলে “তুষিতুষালি’। পূর্ববঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে দু-জায়গায়ই এই ব্ৰতের চলন আছে। প্ৰতিদিন পৌষ মাসের সকালে মেয়েরা এই ব্ৰতটি করে। Α ব্ৰতের বিধি এই : অভ্রানের সংক্রান্তি থেকে व्लक्रीब्र °ाश्रूि পৌষের সংক্রান্তি পর্যন্ত প্রতি সকালে স্নান করে গোবরের ছা বুড়ি ছ-গণ্ডা বা ১৪৪টি গুলি পাকিয়ে, কালো দাগ শুন্য নতুন সরাতে বেগুনপাত