পাতা:বাইবেল পুরাতন নিয়ম ও নতুন নিয়ম.djvu/১৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

* @ 2 সমূহকে এই অজ্ঞা কর, সেয়ীর-নিবাসী তোমাদের ভ্রাতৃগণের অর্থাৎ এক্ষ্মেী-সন্তানদের সীমার নিকট দিয়৷ তোমাদিগকে যাইতে হইবে, আর তাহার তোমাদের হইতে ভীত হইবে ; অতএব তোমরা অতি সাব৫ ধান হইবে। তাহদের সহিত বিরোধ করিও না, কেননা আমি তোমাদিগকে তাহীদের দেশের অংশ দিব না, এক পাদ পরিমিত ভূমিও দিব না ; কেননা সেয়ীর পর্বত অধিকারার্থে আমি এলেকে দিয়াছি। ৬ তোমরা তাহদের নিকটে টাকা দিয়া খাদ্য ক্রয় করিয়া ভোজন করিবে ; ও টাকা দিয়া জলও ক্রয় ৭ করিয়৷ পান করিবে। কেননা তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভু তোমার হস্তের সমস্ত কৰ্ম্মে তোমাকে আশীৰ্ব্বাদ করিয়াছেন ; এই মহাপ্রান্তরে তোমার গমন তিনি জানেন ; এই চল্লিশ বৎসর তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভু তোমার সহবত্তী আছেন ; তোমার কিছুরই অভাব হয় নাই । ৮ পরে আমরা আরাবী তলভূমির পথ হইতে, এলS ও ইৎসিয়োন-গেবর হইতে, সেয়ীর নিবাসী আমাদের ভ্রাতৃগণ এফেী সন্তানদের সন্মুখ দিয়া গমন করিলাম। আর আমরা মোয়াবের প্রান্তরের পথে ফিরিয়া যাত্রা করি৯ লাম। আর সদপ্রভু আমাকে কহিলেন, তুমি মোয়াবীয়দিগকে ক্লেশ দিও না, এবং যুদ্ধ দ্বার। তাহদের সহিত বিরোধ করিও না ; কারণ আমি অধিকারাথে তাহীদের দেশের কোন অংশ তোমাকে দিব না ; কেননা আমি লেটের সন্তানগণকে আৰু নগর তাধি১০ করে করিতে দিয়াছি। (পূৰ্ব্বে ঐ স্থানে এময়ের বাস করিত, তাহার। অনাকীয়দের দ্যায় মহৎ, বহু১১ সংখ্যক ও দীর্ঘকায় জাতি । অনাকীয়দের হ্যায় তাহা রাও রফায়ীয়দের মধ্যে গণিত, কিন্তু মোয়াবীয়ের ২২ তাহাদিগকে এমীয় বলে । আর পূৰ্ব্বে হোরায়েরাও সেয়ীরে বাস করিত, কিন্তু এঘের সন্তানগণ তাহাদিগকে অধিকারচু্যত ও আপনাদের সম্মুখ হইতে বিনষ্ট করিয়া তাহদের স্থানে বাস করিল ; যেমন ইস্রায়েল সদাপ্রভুর দত্ত আপন অধিকার-ভূমিতে ১৩ করিল। ) এক্ষণে তোমর উঠ, সেরদ নদী পার হও । ১৪ তখন আমরা সেরদ নদী পার হইলাম। কাদেশবর্ণেয় অবধি সেরদ নদী পার হওয়া পৰ্য্যন্ত আমাদের বত্রিকাল আটত্রিশ বৎসর ব্যাপী ; সেই সময়ের মধ্যে শিবিরের মধ্য হইতে তৎকালীন যোদ্ধগণ সকলে উচ্ছিন্ন হইল, যেমন সদাপ্রভু তাহদের সম্বন্ধে শপথ ১৫ করিয়াছিলেন। আবার শিবিরের মধ্য হইতে তাহাদিগকে নিঃশেষে লোপ কর।াথে সদাপ্রভুর হস্ত তাহ১৬ দের বিরুদ্ধে ছিল। সেই সমস্ত যোদ্ধ ম রয়া লোকদের ১৭ মধ্য হইতে উচ্ছন্ন হইলে পর সদাপ্রভু আমাকে ১৮ কহিলেন, অন্য তুমি মোয়াবের সীমা অৰ্থাৎ আর ১৯ পার হইতেছ; যখন তুমি অন্মোন-সন্তানগণের সম্মুখে উপস্থিত হও, তখন তাহাদিগকে ক্লেশ দিও না, ‘তাঁহাদের সহিত বিরোধ করিও না ; কারণ আমি তোমাকে অধিকারথে অন্মোন-সন্তানদের দেশের অংশ দ্বিতীয় বিবরণ। & ; 6 - నిరి দিব না, কেনন। আমি লোটের সন্তানগণকে তাহ ২০ অধিকার করতে দিয়াছি । ( সেই দেশও রফায়ীয়দের দেশ বলিয়। গণিত ; রফায়ীয়েরা পূৰ্ব্বকালে সে স্থানে বাস করিত ; কিন্তু অন্মোনীয়ের তাহাদিগকে সমৃ২১ সুন্মীয় বলে । তাহারা অনাকীয়দের হ্যায় মহৎ, বহুসংখ্যক ও দীর্ঘকায় এক জাতি ছিল, কিন্তু সদ্যপ্ৰভু উহাদের সম্মুখ হইতে তাহাদিগকে বিনষ্ট করিলেন : আর উহার তাহাদিগকে অধিকারচু্যত করিয়া তাহা২২ দের স্থানে বসতি করিল। তিনি সেয়ার-নিবাসী এধেীর সন্তানগণের নিমিত্তেও তদ্রুপ কৰ্ম্ম করিলেন, ফলতঃ তাহদের সম্মুখ হইতে হোরীয়দিগকে বিনষ্ট করলেন, তাহাতে উহার তাহাদিগকে অধিকারচু্যত করিয়া অদ্যাপি তাহদের স্থানে বাস করিতেছে । তার অববীয়গণ, যাহারা ঘসা পৰ্য্যন্ত গ্রামসমূহে বাস করিত, তাহাদিগকে কপ্তোর হইতে আগত কপ্তোরীয়েরা ২৪ বিনষ্ট করিয়া তাহীদের স্থানে বাস করল । ) তোমরা উঠ, যাত্রা কর, অর্ণোন উপত্যক পার হও ; দেখ, আমি হিষ্ণুবোনের রাজা ইমোরীয় সীtহানকে ও তাহার দেশ তোমার হস্তে সমর্পণ করিলাম ; তু ম উহা অধিকার করিতে আরম্ভ কর, ও যুদ্ধ দ্বারা তাহার সহিত ২৫ বিরোধ কর । অদ্যাবধি আমি সমস্ত তাকাশমণ্ডলের নীচে স্থিত জাতিগণের উপরে তোম৷ হইতে আশঙ্ক ও ভয় স্থাপন করিতে আরম্ভ করিব : তাহার তোমার সমাচার পাইবে, ও তোমার ভয়ে কম্পমান ও ব্যথিত হইবে। পরে আমি কদেমোৎ প্রান্তর হইতে হিন্থবোনের রাজ সহোনের নিকটে দূত দ্বারা এই শান্তির বাক্য বলিয়া পাঠাইলাম, তুমি আপন দেশের মধ্য দিয়া আমাকে যাইতে দেও, আমি পথ ধরিয়াই যাইব, ২৮ দক্ষিণে কি বামে ফিারব না । আমাদের ঈশ্বর সদtপ্রভু আমাদিগকে যে দেশ দিতেছেন, আমরা যদ্দন পার হইয়। যাবৎ সেই দেশে উপস্থিত ন হই, তাবৎ তুমি টাকা লইয়। আমাকে ভোজনাখ খাদ্য দিবে, ও টকা লইয়া পানার্থক জল দিবে ; আম কেবল ২৯ পদব্রজে পার হইয়া যাইব ; সেয়ীর নিবাসী এষেীসন্তানগণ ও আর-নিবাসী মোয়াবীয়েরাও আমার প্রতি ৩০ সেইরূপ করিয়াছে। কিন্তু হিবোনের রাজা সহোন তাহার নিকট দিয়া যাইবার অনুমতি আমাদিগকে দেন নাই, কেননা তোমার ঈশ্বর সদাপ্রভু তাহীর মন কঠিন করিলেন ও তাহার হৃদয় শক্ত করলেন, যেন তোমার হস্তে তাহাকে সমর্পণ করেন, যেমন অদ্য ৩১ পয্যন্ত রহিয়াছে। আর সদাপ্রভু আমাকে কহিলন, দেখ, আমি সীcইiনকে ও তাহার দেশকে তোমার সম্মুখ দিতে আরম্ভ করিলাম ; তুমিও তাহার দেশ ৩২ অধিকারার্থে লইতে আরম্ভ কর। তখন সীহোন ও তাহার সমস্ত প্রজালোক আমাদের প্রতিকুলে বাহির ৩৩ হইয়৷ ঘহসে যুদ্ধ করিতে আসিলেন। আর আমাদের ঈশ্বর সদাপ্রভু আমাদের সম্মুখে তাহাকে সমর্পণ o ○ ーや 월 R 150